দিসপুরঃ দেশ জুড়ে চলছে করোনা আতঙ্ক। ইতিমধ্যে চিকিৎসক থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যকর্মীরা আপ্রাণ চেষ্টা করে চলছেন। কিন্তু তারই মাঝে ক্রমেই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছে চার হাজার। তারই মাঝে করোনা ভাইরাস নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য গ্রেফতার হলেন অসমের এক বিধায়ক।

কোয়ারেন্টাইন সেন্টার নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার কারণেই অসমের বিরোধী দলের ওই বিধায়ককে গ্রেফতার করা হয়েছে। কারণ কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের পরিকাঠামোকে ডিটেনশন ক্যাম্পের থেকেও খারাপ বলে মন্তব্য করেছেন। আর সেই কারণেই তাঁকে গ্রেফতার কড়া হয়েছে। পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে, বিরোধী দলের ওই বিধায়কের নাম আমিন উল ইসলাম তিনি অল ইন্ডিয়া ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সদস্য। তাঁকে মঙ্গলবারে পুলিশ গ্রেফতার করে। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় আইনের একাধিক ধারাতে মামলা করা হয়েছে।

নগাও জেলার এসপি গৌরব অভিজিত দিলিপ জানিয়েছেন, জেরার মুখে তিনি সব কথা স্বীকার করেছেন। তিনি বিতর্কিত মন্তব্য করে তা বিভিন্ন জায়গাতে ছড়িয়ে দিয়েছেন বলেও জানান। একটি অডিও ক্লিপে তিনি এই কথা পরিচিতকে জানিয়েছিলেন। এছাড়াও তিনি একাধিক বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। জানিয়েছিলেন জোর করে ওই সেন্টারে এনে মানুষের উপরে অত্যাচার করা হচ্ছে। এই জাতীয় মন্তব্য করার কারণেই তাঁকে গ্রেফতার কড়া হয় বলে জানা গিয়েছে।

কেন্দ্রের তরফে জানা গিয়েছে, দিল্লির নিজামুদ্দিনে আগত ব্যক্তিদের মধ্যে অনেকের শরীরে ধরা পড়েছে করোনা ভাইরাস। যার জেরে কিছুটা হলেও চাপ পড়েছে অসমের উপরে। ইতিমধ্যে সে দেশের প্রশাসনের তরফ থেকে আপ্রাণ চেষ্টা করা হচ্ছে পরিস্থিতির উপরে নিয়ন্ত্রন রাখার। আমিন উলকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সোমবার দেখে পাঠিয়েছিল সেখানকার পুলিশ অফিসারেরা। পরবর্তীকালে মঙ্গলবারে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়টি রাজ্য বিধানসভার স্পিকারকেও জানানো হয়েছে। এমনিতেই এই করোনা ভাইরাস নিয়ে ভুয়ো বার্তা ছড়ানো নিয়ে সদা সতর্ক প্রশাসন। আর সেই কারণে এই পরস্থিতিতে যাতে সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত না-হয় তাই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে অসমেও ২৭ জন আক্রান্ত হয়েছে করোনা নামক এই মারণ ভাইরাসে।