লন্ডন: গ্রেফতার হয়েছিল অগাস্ট মাসে৷ বৃহস্পতিবার সেই কুখ্যাত অপরাধী জাবির মোতিওয়ালা ওরফে মোতির জামিন না মঞ্জুর করল ব্রিটেন আদালত৷ এই নিয়ে দ্বিতীয়বার তার জামিনের আবেদন নাকচ করল আদালত৷ তবে তাতে পাকিস্তানের বোধহয় কিছু যায় আসেনা৷ তার কারণ জামিন নাকচ হওয়ার পরেও জাবির মোতিওয়ালাকে ভালো চরিত্রের মানুষ বলে সিলমোহর দিয়েছে সেদেশ৷

লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের বিচারক এমা আরবানট বৃহস্পতিবার কুখ্যাত ডন দাউদ ইব্রাহিমের অন্যতম সঙ্গী জাবিরের জামিন না মঞ্জুর করেন৷ ১৯শে অক্টোবর ফের এই মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে৷ সেদিন পাকিস্তানের হাতে তাকে প্রত্যর্পণ করা হবে কী না সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে৷

মোতিওয়ালার জামিনের আবেদনে সায় ছিল পাকিস্তানের৷ কারণ তারা জানিয়েছিল মোতিওয়ালা সৎ চরিত্রের মানুষ৷ পাকিস্তানের হাই কমিশনার ইসলামাবাদের বিবৃতি সম্বলিত সেই চিঠি তুলে দেন বিচারকের হাতে৷ সেখানে মোতিওয়ালাকে একজন পরিচিত ও সম্মানীয় ব্যবসায়ী হিসেবে ব্যাখ্যা করা হয়৷ তবে এই চিঠি যে বিশেষ কাজ করেনি, তা আদালতের রায়েই স্পষ্ট৷

এর আগে, লন্ডনে গ্রেফতার হয় দাউদের ডান হাত জাবির মোতি ওরফে জাবির সিদ্দিকি। তাকে লন্ডনের হিলটন হোটেল থেকে গ্রেফতার করে লন্ডনের চ্যারিং ক্রস পুলিশ স্টেশন। পরে তাকে আদালতে পেশ করা হয়। জাবির মোতি পাকিস্তানের বাসিন্দা।

সংযুক্ত আরব আমীরশাহি হোক কিংবা ব্রিটেন, দাউদ ইব্রাহিমের বিনিয়োগের বিষয়টি দেখাশোনা করত ওই জাবির মোতি। সূত্রের খবর অনুযায়ী, মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ, আফ্রিকা, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং পাকিস্তানেও দাউনের বিনিয়োগের বিষয়টি সেই দেখাশোনা করত বলে জানা গিয়েছে। আর এই বিনিয়োগ ফেরত টাকার একটা বড় অংশ পাকিস্তানে থাকা জঙ্গি সংগঠনগুলির জন্য ব্যয় করা হয়।

মোতি দাউদের ড্রাগ ব্যবসা, অবৈধ অস্ত্রের কারবার, ভারতের জালনোট চক্রের সঙ্গেও যুক্ত বলে অভিযোগ। দাউদের পরিবারের সদস্যদের ব্রিটেনে যাতায়াতের বিষয়টিও এই জাবির মোতিই দেখাশোনা করত বলে সূত্রের খবর। করাচিতে যেখানে দাউদের বসবাস, সেখানে জাবির মোতির বেশ কিছু সম্পত্তি রয়েছে। অ্যান্টিগুয়া ও ডোমিনিকান রিপাবলিক, হাঙ্গেরির নাগরিকত্বের জন্য চেষ্টা করেছিল জাবির মোতি।

ব্রিটেনে বসবাসের জন্য তার দশ বছরের ভিসা রয়েছে। এর আগে ভারতের তরফ থেকে মোতি গ্রেফতারের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিল। জাবির মোতি ড্রাগ ব্যবসা, তোলাবাজি এবং অন্য অসামাজিক কাজের সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ। সূত্রের খবর অনুযায়ী, পাকিস্তানের বাসিন্দা জাবির মোতি দাউদ এবং তার স্ত্রী মহাজাবিনের ঘনিষ্ঠ।