নয়াদিল্লি: নারী নিরাপত্তায় ভারতের হাল দেখে কটাক্ষ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর৷ তিনি মঙ্গলবার রাষ্ট্রপুঞ্জের রিপোর্টটি ট্যুইট করেন৷ সেখানে কংগ্রেস সভাপতি, প্রধানমন্ত্রীর তিন বছর ধরে প্রচার করা প্রকল্প বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘‌দেশের প্রধানমন্ত্রীকে দেখা যায় বাগানে যোগা করতে। সেই ভিডিও প্রকাশ করা হয়। অথচ নারী নিগ্রহে আফগানিস্তান, সিরিয়া এবং সৌদি আরবের থেকে এগিয়ে র‌য়েছে ভারত। আমাদের দেশের জন্য সত্যি কি লজ্জার।’‌

মেয়েদের নিরাপত্তা নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের মতামত চেয়েছিলেন সমীক্ষকরা। সেই সমীক্ষা রিপোর্টে ভারতের নাম নারী নিগ্রহের তালিকায় শীর্ষে উঠে আসায় বিশেষজ্ঞদের মত, গত সাত বছরে মেয়েদের নিরাপত্তা বাড়ানোর ব্যাপারে কিছুই করেনি কেন্দ্রীয় সরকার। যা নিয়ে টুইট করতে ছাড়েননি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। ফলে প্রবল অস্বস্তিতে পড়ে গিয়েছে নরেন্দ্র মোদির সরকার বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

রাষ্ট্রপুঞ্জের ১৯৩ সদস্য দেশের মধ্যে কোন পাঁচটি দেশে মেয়েরা সব থেকে বেশি অসুরক্ষিত?‌ এই প্রশ্নের উত্তরই এখন ভারতকে নাড়িয়ে দিয়েছে। কারণ রাষ্ট্রপুঞ্জ ভারতকেই শীর্ষে রেখেছে। ফলে বিজেপির বিরুদ্ধে বেশ জোরালো অস্ত্র পেয়ে গেল কংগ্রেস বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল৷

মহিলাদের উপর যৌন নির্যাতনের ঘটনায় এতটুকুও রাশ টানা যায়নি৷ বরং দিন দিন তা লাগাম ছাড়া হয়েছে৷ ক্রমে মহিলাদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপত্তাহীন দেশ হয়ে উঠেছে ভারত৷ নির্ভয়া কাণ্ড থেকে শুরু করে কাঠুয়া, উন্নাও এবং সাম্প্রতিক রাঁচিতে পাঁচ এনজিও মহিলাকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনা প্রমাণ করে মহিলারা কতটা অসুরক্ষিত এখানে৷ এই সব ঘটনার সুবাদে যুদ্ধ বিদ্ধস্ত সিরিয়া ও আফগানিস্তানকে পিছনে ফেলে ভারত এখন নারী নির্যাতনে প্রথম৷

মঙ্গলবার থমসম রয়টার্স ফাউন্ডেশন একটি সমীক্ষা সামনে আনে৷ সেখানে মহিলাদের উপর যৌন নির্যাতনে ভারত এক নম্বরে উঠে এসেছে৷ ভারতের ঠিক পরেই রয়েছে আফগানিস্তান ও সিরিয়া৷ তারপর আছে সোমালিয়া ও সৌদি আরব৷ এছাড়া আরও বেশ কয়েকটি এশিয়ার দেশ প্রথম দশে জায়গা করে নিয়েছে৷ পশ্চিমী দেশগুলির মধ্যে একমাত্র আমেরিকার নাম রয়েছে প্রথম দশে৷

২০১১ সালে অনুরূপ একটি সমীক্ষা করে সংস্থাটি৷ তখনও নারীদের উপর যৌন নির্যাতনে এগিয়ে ছিল এশিয়া ও আফ্রিকার দেশগুলি৷ তালিকায় নাম ছিল আফগানিস্তান, পাকিস্তান, ভারত, সোমালিয়া ও কঙ্গোর মতো দেশগুলির৷ সেই সমীক্ষার সাত বছর পরেও ভারতে যে এতটুকুও বদলায়নি পরিস্থিতি তা মঙ্গলবারের সমীক্ষাতে পরিস্কার৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও