নয়াদিল্লি: রোহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনির মত ক্রিকেটারকে পাশে পেয়েছেন। আর জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলির সাফল্য সেই কারণেই। মনে করেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন ওপেনার তথা বর্তমান বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর।

বর্তমান জাতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির নেতৃত্বের প্রশংসা করেও তাঁকে এভাবেই খোঁচা দিলেন গম্ভীর। প্রাক্তন জাতীয় দলের ওপেনারের কথায় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে সাফল্য একজন অধিনায়কের নেতৃত্বের আসল পরিচয়। আর সেখানেই বেশ কিছুটা পিছিয়ে কোহলি, মনে করেন গম্ভীর। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বৃহস্পতিবার গম্ভীর বলেন, ‘এখনও অনেকটা পথ যেতে হবে ওকে। বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসেবে ভালো পারফরম্যান্স করলেও লম্বা পথ বাকি কোহলির। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দীর্ঘ সময় ও পাশে পেয়েছে রোহিত শর্মা, এমএস ধোনির মত ক্রিকেটারকে। কিন্তু অধিনায়কত্বের আসল পরিচয় আইপিএলের মত ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে। যখন তোমার পাশে সেই অর্থে বড় নাম কেউ থাকবে না।’

এপ্রসঙ্গে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স অধিনায়ক হিসেবে রোহিত শর্মা ও চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক হিসেবে মহেন্দ্র সিং ধোনির সাফল্যের কথা তুলে ধরেন প্রাক্তন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। সে তুলনায় আরসিবি অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলি যে বেশ কিছুটা পিছিয়ে, তা মনে করিয়ে দিয়েছেন গম্ভীর।

পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেটে রোহিত শর্মাকে দিয়ে ওপেন করানোর পক্ষেও এদিন সুর চড়িয়েছেন বিজেপি সাংসদ। গম্ভীরের কথায়, ‘এই ফর্ম্যাটে কেএল রাহুল অনেক সুযোগ পেয়েছে। এবার সময় হয়েছে রোহিতকে সুযোগ করে দেওয়ার। রোহিতকে যদি টেস্ট স্কোয়াডে রাখা হয়, আমার মনে হয় অবশ্যই তাঁকে একাদশে সুযোগ দেওয়া উচিৎ। বেঞ্চে বসে সময় কাটানো রোহিতের পক্ষে মানানসই নয়।’

অনুষ্ঠানে খোলামেলা গম্ভীর নিজের কেরিয়ার নিয়েও বেশ কিছু অজানা কথা শোনান। ২০০৭ বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়ার পরই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তিনি অবসরের কথা ভেবেছিলেন বলে জানান গম্ভীর। কিন্তু ভাগ্যের পরিহাসে ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপ ফের তাঁকে ফের পাদপ্রদীপের আলোয় নিয়ে এসেছিল। টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ স্কোরার হওয়ার ঘটনাও এদিনের অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারন করেন গম্ভীর। পাশাপাশি আইপিএলে মুখোমুখি হলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শেন কিথ ওয়ার্নের স্পিন মোকাবিলা না করতে পারার দুঃখ যে তার রয়ে গিয়েছে, জানান ২০১১ ভারতের বিশ্বজয়ের নায়ক।