শিলিগুড়ি: রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রীর পর এবার যুব কল্যান মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের নিশানায় শিলিগুড়ি মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। বহু চর্চিত শিলিগুড়ি মডেলকে কটাক্ষ করে এবার 'খিচুরি মডেলে'-এর তকমা দিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস৷  বুধবার শিলিগুড়িতে রাজ্য ক্ষুদ্র, ছোট,মাঝারি ও বস্ত্র দফতর আয়োজিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য হস্ত শিল্প মেলার উদ্বোধনে এসে  শিলিগুড়ির মেয়র তথা বামফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অশোক ভট্টাচার্যকে এমন ভাষাতেই আক্রমন করেন তিনি। মন্ত্রী অরূপ এদিন বলেন, ‘শিলিগুড়ি মডেলের নামে জনা কয়েক মানুষ যেভাবে চেঁচাচ্ছে তা আসলে হ-য-ব-র-ল মডেল, বলা ভাল খিছুরি মডেল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নই আসল একটি মডেল।’  
প্রসঙ্গত, শিলিগুড়ি পুরনিগম ও মহকুমা নির্বাচনে বামেদের বিপুল জয়ের পর থেকেই শিলিগুড়ি মডেলের মূল কারিগর হয়ে উঠেন অশোক ভট্টাচার্য। কিন্তু এদিন অরূপ বিশ্বাস অভিযোগ তুলে বলেন, ‘অশোক ভট্টাচার্যরা উন্নয়নে সম্পূর্ন রূপে ব্যর্থ।   শিলিগুড়ি পুর এলাকার মানুষদের মিউটেশন ফ্রি ০.৫ শতাংশ থেকে  ২ শতাংশ বৃদ্ধি করেছে। কিন্তু পুরনিগমের তৃনমূল কাউন্সিলরদের অন্দোলনের জেরে তা ১ শতাংশতে নিয়ে আসতে বাধ্য হয়েছে তারা। তবে যতক্ষণ না অবধি এই মিউটেশন ফি পুরোপুরি কমবে, ততক্ষন অবধি কৃষ্ণ পাল এর নেতৃত্বে পুরনিগমে আন্দোলন চলবে।’ তিনি আরও অভিযোগ করেন, ‘এই বোর্ড মানুষের ওপর চাপ বৃদ্ধি করা ছাড়া আর কিছুই করছে না। মানুষ সব বুঝতে পারছে।’ বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়ি ও পার্শ্ববর্তী সবগুলি কেন্দ্রেই তৃনমূল কংগ্রেস জয় লাভ করবে এদিন দাবিও করেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস৷
অপরদিকে, যুব কল্যান মন্ত্রীর করা অভিযোগের পরিপেক্ষিতে অশোক ভট্টাচার্য বলেন, ‘মিউটেশন ফি বৃদ্ধির অভিযোগ করা হচ্ছে, সেই কর বৃদ্ধির নির্দেশিকা রাজ্য সরকারের তরফেই করা হয়েছে। শুধু মাত্র শিলিগুড়ি পুরনিগমের মিউটেশন ফি বৃদ্ধি করা হয়নি। কলকাতা পুরসভারও মিউটেশন ফি বৃদ্ধি করা হয়েছ। আগে সেই কর কমানো হোক, তারপর আমরা এই বিষয়টি ভেবে দেখবো।’ তিনি বলেন, ‘রাজনীতি করা জন্য অরূপ বাবুরা এই সব বলছেন। বিধানসভা নির্বাচনে হেরে তাদের মুখ নিশ্চিতভাবে বন্ধ হবে।’