নয়াদিল্লি: ২০১৯-এর বাজেটকে বৃদ্ধি-মুখী, আর্থিক দিক থেকে বাস্তব বলে উল্লেখ করলেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। আসুস্থ থাকার কারণে তিনি নিজের বাজেট পেশ করতে পারেননি। বাজেট পেশ করেছেন ভারপ্রাপ্ত অর্থমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল।

নিউইয়র্কে চিকিৎসা করাচ্ছেন তিনি। সেখান থেকে ট্যুইটে প্রশংসা করেছেন জেটলি। তিনি বর্তমানে মন্ত্রকহীন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। জেটলির মতে এটি চমৎকার গরিব ও কৃষকমুখী বাজেট এটি, যা মধ্যবিত্তের ক্রয়ক্ষমতাও বাড়াবে।

জেটলি ট্যুইট করেছেন, নিঃসংশয়ে এই বাজেট বৃদ্ধি-মুখী, আর্থিক দিক থেকে বাস্তব, কৃষক, গরিবকেন্দ্রিক, মধ্যবিত্তের ক্রয়ক্ষমতাও তা বাড়াবে।

তিনি বলেন, ২০১৪ থেকে ২০১৯ এর মধ্যে প্রতিটি কেন্দ্রীয় বাজেটই মধ্যবিত্তকে উল্লেখযোগ্য স্বস্তি দিয়েছে। বাজেটে বাস্তব মেনে আর্থিক বিচক্ষণতায় গুরুত্ব দিয়েই ব্যয়বৃদ্ধিতে উত্সাহ দেওয়া হয়েছে। জেটলি বলেন, অন্তর্বর্তী বাজেট সবসময়ই ক্ষমতাসীন সরকারকে গত পাঁচ বছরের পারফরম্যান্স গভীর ভাবে খতিয়ে দেখার, দেশবাসীর সামনে তথ্য পরিসংখ্যান পেশের সুযোগ দেয়।

লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই মোদী সরকারের শেষ বাজেট। তাই এই বাজেট ছিল কেন্দ্রের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। বাজেট শেষে মোদী বলেন, এটা অন্তবর্তী বাজেট। এটা আসলে বাজেটের ট্রেলার। লোকসভা নির্বাচনের পর এই বাজেট দেশকে উন্নয়নের পথে নিয়ে যাবে।