কলকাতা: ফুটবল কেরিয়ারের শেষ ম্যাচটা সুখের হল না মেহতাবের। ময়দানের ভিকি ভাইয়ের বিদায়ী ম্যাচে ইন্ডিয়ান অ্যারোজের কাছে আত্মসমর্পন করল মোহনবাগান।

ঘরের মাঠে লিগের শেষ ম্যাচে লজ্জার হার খালিদ এন্ড কোম্পানির। সনি-মেহতাবরা ম্যাচ হারলো ১-৩ ব্যবধানে। শেষ ম্যাচে মেরিনার্সদের একই ব্যবধানে মাটি ধরিয়েছিল চেন্নাই সিটি৷ এদিন হারের ফলে ১৯ ম্যাচ শেষে বাগানের ঝুলিতে ২৬ পয়েন্ট৷ পয়েন্ট টেবিলের অনেক পিছনে ছয় নম্বরে মোহনবাগান৷

আরও পড়ুন- অভিনন্দন ফিরিয়ে ‘জেন্টেলম্যান গেম’ খেললেন ইমরান

শুরুটা অবশ্য খারাপ করেনি খালিদের দল৷ ম্যাচের ২৮মিনিটে সনির পাশ থেকে জটলা থেকে গোল আজারুদ্দিনের৷ ছোটদের বিরুদ্ধে সেই গোলেই এগিয়ে যায় বাগান৷ এরপরই রক্ষণের পুরনো রোগ! লিড  বেশীক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি মেরিনার্স৷ এগিয়ে থেকে তিন গোল হজম করে ম্যাচ হারে বাগান। তিন গোল হজমের ক্ষেত্রেই বাগান ডিফেন্সকে ভিলেন বলা চলে৷

আরও পড়ুন- পাক ক্রিকেটারের সঙ্গে একাসনে বিরাট

প্রথমার্ধে ২৭মিনিটে বাগান গোলরক্ষক রিকার্ডোর ভুলেই সমতায় ফেরে অ্যারোজ। আনোয়ার আলির ফ্রি-কিক ধরতে গিয়ে বলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভুল রিকার্ডোর৷ ফিরতি বলে সহজ সুযোগে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি অ্যারোজের অভিজিৎ সরকার। দ্বিতীয়ার্ধে এরপর ৭৪মিনিটে বরিশের পাস থেকে ডিফেন্স চিরে দুরন্ত গোল রাহুলের। এবারও বাগানের ডিফেন্সকে দর্শক বানিয়ে গোল করে যায় অ্যারোজ৷

অতিরিক্ত সময়ের (৯০+৫মিনিটে) বাগানের কফিনে শেষ পেরেক পুঁতে দেন রোহিত। দূরপাল্লার শটে বাগানের জাল কাঁপিয়ে অ্যারোজের পক্ষে স্কোরলাইন ৩-১ করে দেন রোহিত দানু৷ নিট ফল ঘরের মাঠে অ্যারোজের বিরুদ্ধে শেষ মরশুমের মতো এবারও জয় অধরা বাগানের। শেষবার মেনিরার্সের বিরুদ্ধে মোহনবাগান মাঠে ড্র করেছিল অ্যারোজ। অ্যারোজ ম্যাচে লজ্জার হারে বিদায়ী মঞ্চ থেকে ফাঁকা হাতেই ডেসিংরুমে ফিরতে হল মেহতাবকে৷

আরও পড়ুন- রিয়াল জয়ে লিগের আশা জিইয়ে রাখল লাল-হলুদ