স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: কল্যাণী হাইওয়ের পাশে মধুচক্রের আসরে হানা দিয়ে হাতেনাতে ২২ জনকে গ্রেফতার করল নৈহাটি থানার পুলিশ। শুক্রবার ধৃতদের বারাকপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়৷ ধৃত যুবতীদের মধ্যে কয়েক জন কলেজ ছাত্রী আছে বলে পুলিশ সূত্রের খবর।

উত্তর ২৪ পরগণা জেলায় কল্যাণী হাইওয়ের ধারে রমরমিয়ে চলছে হোটেল ব্যবসা। আর সেই হোটেল গুলির মধ্যেই জমিয়ে বসেছে মধুচক্রের আসর। বৃহস্পতিবার গভীর রাত্রে বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে গোয়েন্দা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে, নৈহাটির কল্যাণী হাইওয়ের পাশে এক নামী হোটেল থেকে মধুচক্রে জড়িত থাকার অভিযোগে ২২ জনকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে সাত জন মহিলা৷ হেটেলের ম্যানেজার ও মালিককেও ধরা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। শুক্রবার ধৃতদের বারাকপুর মহকুমা আদালতে তোলে নৈহাটি থানার পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ হোটেলটা নামমাত্র, তার পিছনে চলত মধুচক্রের ব্যবসা। উত্তর ২৪ পরগণার বিভিন্ন জায়গা থেকে যুবক-যুবতী ও মহিলারা ভিড় করতো এই হোটেলে। মোটা টাকা দিয়ে সেখানে মধুচক্র চালাত হোটেল মালিক। কোথা থেকে মহিলা পুরুষ যুবক ও যুবতীরা-হোটেলে আসতো সেটা খতিয়ে দেখছে বসিরহাট থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শুধু এই হোটেলই নয়, বারাকপুর কল্যাণী হাইওয়ের পাশে গজিয়ে ওঠা আরও কয়েকটি হোটেলেও রমরমিয়ে দেহ ব্যবসা চলছে বলে তাদের কাছে খবর আছে৷ সেই সব হোটেল গুলিতেও আচমকা হানা দেওয়া হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।