স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: দ্বিতীয় দিনে সারদা মামলায় সিবিআইয়ের মুখোমুখি সিটের অন্যতম কর্তা অর্ণব ঘোষ৷ জেরা চলাকালীন সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সের সিবিআই দফতরে এল দু’টি ট্রাঙ্ক ভরতি সারদার নথি৷ এদিন ৬ ঘন্টা পর বেরিয়ে যান বিধাননগর কমিশনারেটের প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রধান৷ সে সময় তিনি জানান, এই মুহূর্তে তাকে ফের ডাকা হয়নি৷ যদিও সিবিআই সূত্রে খবর, প্রয়োজনে অর্ণব ঘোষকে ফের ডাকা হতে পারে৷

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় তাঁকে আসতে বলা হয়েছিল বলে বুধবার জানিয়েছিলেন অর্ণব ঘোষ৷ কিন্তু এদিন দেখা গেল তার মিনিট ১৫ আগেই সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে ঢুকলেন বিধাননগর কমিশনারেটের প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রধান অর্ণব ঘোষ৷ বিকাল ৫টা নাগাদ তিঁনি সিজিও কমপ্লেক্স থেকে বেরিয়ে যান৷ সে সময় তাঁকে প্রশ্ন করা হলে জানান, ফের তাঁকে হাজিরার জন্য এদিন কিছু বলা হয়নি৷ কোন কোন বিষয় তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে সে বিষয় তিনি মুখ খোলেননি৷ এমনকি জেরা চলাকালীন যে দু’টি ট্রাঙ্ক ভরতি সারদা কান্ডে বাজেয়াপ্ত নথি সিবিআই দফতরে জমা পড়েছে, সেই বিষয়ও তিনি কিছু জানেন না বলে জানান৷

পড়ুন: বিশ্বকাপে মাইক্রোফোন হাতে অভিষেক সচিনের

এদিন সারদা মামলায় তদন্তে সিটের অন্যতম কর্তা হাজির হওয়ার এক ঘন্টার মধ্যে সিজিও কমপ্লেক্সে বিধাননগর পুলিশ কনিশনারেটের একটি গাড়ি আসে৷ সেই গাড়ি থেকে বিধাননগর সাউথ থানার এস আই আর আই মোল্লা দু’টি বড় বড় ট্রাঙ্ক ভরতি নথি সিবিআই দফতরে নিয়ে যান৷ উল্লেখ্য, অর্ণবকে গতকাল জেরার মাঝখানে সিবিআই দফতরে ডেকে পাঠানো হয়েছিল ওই এস আই কে৷

এর আগে সিবিআই বার বার দাবি করে আসছিল, সারদা কান্ডে বাজেয়াপ্ত অনেক গুরুত্বপূর্ণ নথি তারা হাতে পাননি৷ বিশেষ করে পেন ড্রাইভ , লাল ডায়েরি৷ রাজ্য সরকারের পুলিশের হেপাজতে থাকা দু’টি ট্রাঙ্ক ভরতি সারদা কান্ডে বাজেয়াপ্ত নথি জমা পড়ায় সিবিআইয়ের দাবিতেই সিলমোহর পড়ল বলে খবর৷ সিবিআই এখন খতিয়ে দেখবে ট্রাঙ্ক ভরতি ওই নথিকে কোনও গুরুত্বপূর্ণ নথি আছে কিনা৷ যা এই মামলার তদন্তে গতি আনতে পারে৷