মুম্বই: আবারও বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী। এবার মুম্বই পুলিশের তদন্তে স্থগিতাদেশ চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন অর্ণব। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্তের দায়িত্ব সিবিআই বা অন্য কোনও সরকারি সংস্থাকে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন অর্ণব গোস্বামী। বম্বে হাইকোর্টে আগামী ১০ ডিসেম্বর অর্ণব গোস্বামীর আবেদনের শুনানি হবে।

দিন কয়েক আগেই রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামীর অন্তর্বর্তী জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। ২০১৮-র একটি আত্মহত্যার মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন অর্ণব গোস্বামী। আত্মহত্যার ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

গ্রেফতারির পর সুপ্রিম কোর্ট থেকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে মুক্ত হন অর্ণব। শুধু অর্ণবই নন, আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় ধৃত তিনজনেরই জামিন মঞ্জুর করে শীর্ষ আদালত। একইসঙ্গে জামিন-শুনানিতে মহারাষ্ট্র সরকারকেও ভর্ৎসনা করেছে সর্বোচ্চ আদালত।

গত ১১ নভেম্বর অর্ণবের জামিন আবেদনের শুনানিতে মহারাষ্ট্র সরকারকেও ভর্ৎসনা করে বিচারপতিরা বলেন, ‘‘ব্যক্তিগতভাবে কাউকে নিশানা করা যায় না। রাজ্য সরকারের আলাদা মতামত থাকতেই পারে। রাজ্য সরকার কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করলে তাদের মনে রাখতে হবে ব্যক্তি স্বাধীনতা রক্ষা করতে দেশে সর্বোচ্চ আদালত রয়েছে।’’দিন কয়েক আগে অর্ণবের অন্তর্বর্তী জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।

মহারাষ্ট্র পুলিশের তদন্তে আস্থা নেই অর্ণবের। খ্যাতনামা এই সাংবাদিকের অভিযোগ, ক্রমাগত তাঁকে হয়রান করছে মুম্বই পুলিশ।

প্রকৃত তদন্তের স্বার্থেই অর্ণব ফের বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। মহারাষ্ট্র পুলিশের বদলে অর্ণব তাঁর বিরুদ্ধে চলা মামলায় সিবিআই বা অন্য কোনও সংস্থাকে দিয়ে তদন্ত করানোর আবেদন করেছেন। তবে আদালত অর্ণবের এই আবেদনে সাড়া দেয় কিনা এখন সেটাই দেখার।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।