নয়াদিল্লি: কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ বন্ধ করার জন্য নেওয়া হল নয়া পদক্ষেপ। এর আগেও আন্তর্জাতিক মঞ্চেও অনেকবার সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ কঠোর ভাবে দমন করার আবেদন জানিয়েছিল ভারত। এবারে কাশ্মীরে শান্তি বজায় রাখার জন্য এক নতুন পথ অবলম্বন করতে চলেছে ভারতীয় সেনা।

জানা গিয়েছে, স্পেশাল অপারেশন ডিভিশনের অধীনে তিন স্পেশাল ফোর্সের বিশেষ প্রশিক্ষিত তিনটি দল আর্মি প্যারা ( স্পেশাল ফোর্স), নেভির মেরিন কমান্ডো( মার্কোস), এবং এর সঙ্গে বায়ুসেনার গরুড়কে মোতায়েন করা হয়েছে কাশ্মীরে।

এছাড়াও সেনা সূত্রে পাওয়া খবর থেকে জানা গিয়েছে, কাশ্মীরের সংবেদনশীল এলাকাগুলিতে এই তিন দল ইতিমধ্যে নিজেদের কাজ শুরু করেছে। কাশ্মীরের সংবেদনশীল এলাকাগুলির মধ্যে শ্রীনগর অন্যতম। এই জায়গাতেও সেনাবাহিনীর দল নজর রাখছে বলেও জানা গিয়েছে। এই তিন দলকে দ্রুত সন্ত্রাস দমনের দায়িত্ব দেওয়া হবে বলেও জানা গিয়েছে।

এছাড়াও কাশ্মীর উপত্যকাতে নেভির মার্কোস এবং বায়ুসেনার গরুড় পরস্থিতির দিকে কড়া নজর রাখছে। আর সন্ত্রাসবাদ দমনে এই প্রথমবার তিন বাহিনী এক হয়ে এই জায়গাতে কাজ শুরু করেছে। মার্কোসকে কাশ্মীরের উলার লেক সংলগ্ন অঞ্চলে এবং বায়ুসেনার গরুড়কে ললাব এবং হাজিন এলাকাতে মোতায়েন কড়া হয়েছে বল খবর।

বায়ুসেনার এই বিশেষ প্রশিক্ষিত দল ইতিমধ্যে ছয়জন সন্ত্রাসবাদীকে নিকেশ করেছে এবং পুনরায় যাতে কোন সন্ত্রাসবাদী এলাকার শান্তি বিঘ্নিত করতে না পারে সেদিকে নজর রাখছে। তার সঙ্গে বাকি দুই দলও প্রস্তুত হয়ে রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর পরিস্থিতিতে তিন বাহিনী যাতে একসঙ্গে কাজ করতে পারে এছাড়াও কোনরকম সমস্যা যাতে তারা সামলে নিতে পারে সেইজন্য তাদের কাশ্মীরে মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। যে কোনও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ যাতে তারা দমন করতে পারে সেই কারণে বিশেষ ভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলেও জানা গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা