নয়াদিল্লি: রহস্যজনক মৃত্যু ভারতীয় সেনার ক্যাপ্টেন পদাধিকারীর৷ নয়াদিল্লিতে রেললাইনের ওপর পড়ে থাকতে দেখা গেল দেহ৷ ক্যাপ্টেন দিবাকর পুরীর মুণ্ডহীন দেহ পড়ে থাকার ঘটনা রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়ায়৷ দিল্লির সদর বাজার রেলস্টেশনের কাছে দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়৷

গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ পুলিশ সূত্রে খবর লখনউতে ৭দিনের ট্রেনিংয়ে গিয়েছিলেন ক্যাপ্টেন দিবাকর৷ সোমবারই দিল্লিতে ফেরেন তিনি৷ শ্রমজীবী এক্সপ্রেসে করে লখনউ থেকে দিল্লি ফেরেন ওই ক্যাপ্টেন৷ ট্রেন প্ল্যাটফর্মে ঢুকে যাওয়ার পরেও ঘুম থেকে না ওঠায়, তাঁকে ডেকে দেন রেলের এক কর্মী৷

আরও পড়ুন : ঘুমের মধ্যেই বিকট শব্দে ভেঙে পড়ল পাক সেনার বিমান, রইল ছবি

রেলের ডিসিপি জানান, ট্রেন থেকে নামার কিছু পরেই তাঁর দেহ উদ্ধার হয় রেল লাইন থেকে৷ অথচ তাঁর জিনিসপত্র পড়ে ছিল ট্রেনের বগিতেই৷ পরে সেই সব জিনিস উদ্ধার করে নিজেদের হেফাজতে নেয় আরপিএফ৷ কিন্তু কীভাবে ক্যাপ্টেন পুরীর মৃত্যু হল, তা বুঝতে পারছেন না কেউই৷ পুলিশও রীতিমত ধন্দ্বে গোটা ঘটনায়৷

প্রাথমিকভাবে একে আত্মহত্যার ঘটনা বলেই মনে করা হচ্ছে৷ তবে এই তত্ব মানতে রাজি নন ক্যাপ্টেন দিবাকরের পরিবারের লোকজন৷ তাঁর বাবা বলেছেন তাঁর ছেলে কখনই আত্মহত্যা করতে পারে না৷ এরকম কোনও কারণই তাঁর ছেলের জীবনে ছিল না, যার জন্য আত্মহত্যা করতে পারে৷

আরও পড়ুন : লিভার-ফুসফুস থেকে বেরোল কয়েক লক্ষ ডিমের মত সিস্ট…

ক্যাপ্টেন পুরী আর্মি মেডিক্যাল কর্পসে চিকিৎসক হিসেবে যুক্ত ছিলেন৷ জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সম্প্রতি তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয়৷ ইতিমধ্যেই তাঁর দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে৷ তারপরেই প্রকৃত ঘটনা সামনে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে৷