প্রতীতী ঘোষ,বারাকপুর : বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার খুনের ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়ে বিজেপি-র পক্ষ থেকে শুক্রবার সন্ধ্যা বেলা এক মোমবাতি মিছিলের আয়োজন করা হয় ।এই মিছিলে নেতৃত্ব দেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং।

এদিন ব্যারাকপুর স্টেশন থেকে শুরু হয়ে টিটাগরে যে জায়গায় মণীশ শুক্লা কে খুন করা হয়েছিলো সেই পর্যন্ত মোমবাতি মিছিল করেন বিজেপি কর্মী ও সমর্থকরা।এদিন এই প্রতিবাদ মিছিলে নেতৃত্ব দিয়ে সাংসদ অর্জুন সিং বলেন “আমাদের যুব নেতা মনীশ শুক্লা খুনের ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ও এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়ে আমরা আজ মোমবাতি মিছিল করছি। তৃণমূল আগামীতে যে শান্তি মিছিল বের করবে বলেছে সেটা আসলে শান্তি মিছিল না সেটা তৃণমূলের বিজয় মিছিল হিসেবে বের করা হবে “।

বিস্ফোরক অভিযোগ করে তিনি বলেন, “মণীশ শুক্লা কে খুন করে তৃণমূল ভাবছে এবার ভোটে এগিয়ে যাবে।জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ১ লাখ লোক নিয়ে শান্তি মিছিল করবেন। তাছাড়া এরকম মিথ্যা কথা হামেশাই বলে থাকেন ওরা। “

এদিন এই প্রতিবাদ মিছিলে অর্জুন সিং ছাড়াও মোমবাতি হাতে পা মেলান বিধায়ক সুনীল সিং, অর্জুন পুত্র তথা ভাটপাড়া বিজেপি বিধায়ক পবন সিং সহ কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী ও সমর্থকরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।