ফাইল চিত্র৷

স্টাফ রিপোর্টার , বারাকপুর : ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগেই তৃণমূল ছাড়েন অর্জুন সিং। বারাকপুর আসন থেকে দীনেশ ত্রিবেদীকে তৃণমূল সুপ্রিমো টিকিট দেওয়ায় একপ্রকার অভিমানেই দল ছাড়েন একসময় দীনেশ ত্রিবেদীকে ভোটে জিতিয়ে নিয়ে আসা অর্জুন। বহু দিন ব্যাক বেঞ্চার হয়েই ছিলেন , তাই ফ্রন্টে আসতে চেয়েছিলেন। ইমেজ ভালো ছিল না সম্ভবত সি জন্যই তাঁকে টিকিট দেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপিতে যোগদান করেন অর্জুন। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসেন অর্জুনই। তারপর থেকে কখনও পুরসভা দখল তো কখনও ভোট পরবর্তী অশান্তিতে সরগরম থেকেছে অর্জুনের ঘাঁটি।

বৃহস্পতিবার, উত্তর ২৪ পরগনার হাজীনগর ছাই ময়দানে হুকুম চাঁদ জুটমিলের জনসভায় বক্তব্য রাখতে এসে সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন অর্জুন সিং। বললেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যারাকপুরে মিটিং করতে দেব না।’

বৃহস্পতিবার নৈহাটি ছাই ময়দানে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের সমর্থনে জনসভা করতে সরাসরি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, ‘আমরা মিটিং করলে সব দিক দিয়ে আমাদের কর্মীদের বাধা দেওয়া হচ্ছে। মিটিংয়ের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। দলের কর্মীদের মিটিংয়ে আসতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। যারা সভার মাইক ম্যান আছে, ব্যবসা করে, তাদের তৃণমূলের গুন্ডারা হুমকি দিচ্ছে, ভয় দেখাচ্ছে। পিছনে বসে পুলিশ তামাশা দেখছে। এই জিনিস বেশিদিন চলতে পারে না। আমরাও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ব্যারাকপুরে মিটিং করতে দেব না। মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণাতেই এখন আমাদের দলের কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছে। আমরা যখন গণতান্ত্রিক দেশে মিটিং করতে পারব না। তখন এই ব্যারাকপুরে মুখ্যমন্ত্রীকেও মিটিং করতে দেব না।’

একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ওনার গাড়ি যে রাস্তা দিয়ে আসবে, সেই রাস্তার উপর আমাদের দলের কর্মীরা শুয়ে পড়বে। কত কর্মীকে মারবে ? কত কর্মীকে গ্রেফতার করবে ? আমরাও দেখব । আমরা মিটিং করতে পারব না, ওরা মিটিং করবে, এটা চলবে না । এই ছাই মাঠে মিটিং শুরু করা যাচ্ছিল না তৃণমূলী গুন্ডাদের অত্যাচারে । আমি আসার পর মিটিং শুরু হল।’

সাংসদ অর্জুন সিং আরও বলেন, ‘২০২১ সালে তৃণমূল আর রাজ্যে ক্ষমতায় ফিরবে না । দেওয়াল লিখন হয়ে গেছে । এখনো যদি কেউ দেখতে না পায়, সেটা তার ব্যর্থতা । মানুষ তৃণমূলকে আর ক্ষমতায় ফেরাবে না । ওদের ক্ষমতায় থাকার দিন শেষ হতে চলেছে।’

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I