কলকাতা: ভোট শেষ হলেও ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত কাঁকিনাড়া। ভাটপাড়ার উপনির্বাচনের পর থেকেই ঝামেলা তুঙ্গে। যদিও অর্জুন সিং আসলে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী কিন্তু লড়াই চলছে অর্জুন সিং আর মদন মিত্রের। এবার এই প্রসঙ্গে বিস্ফোরক অভিযোগ সামনে আনলেন কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গী।

বিজয়বর্গী আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছেন যে অর্জুন সিং-কে হত্যা করা হতে পারে। মঙ্গলবার একটি ট্যুইটে এই দাবি করেছেন তিনি। তিনি জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অর্জুন সিং-কে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন। ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার সুনীল চৌধুরীকে মমতা এই নির্দেশ দিয়েছেন বলে দাবি বিজেপি নেতার।

শুধু গ্রেফতারি নয়, বিজয়বর্গীর আশঙ্কা এনকাউন্টারে মারা হতে পারেন অর্জুন সিং-কে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘অর্জুন সিং-এর যদি কিছু হয়, তাহলে মমতাকেই তার জন্য দায়ী করা হবে।

নির্বাচনের আগে কৈলাশ বিজয়বর্গীর হাত ধরে, মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন অর্জুন সিং। ভাটপাড়ার এই দাপুটে নেতাকে প্রার্থী করা হয় ব্যারাকপুর থেকে। এরপর থেকেই গণ্ডগোল শুরু হয়, তবে উপনির্বাচনের পর থেকে সব মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। মঙ্গলবারও ভাটপাড়ায় চলে বোমা ও গুলি৷

লোকাল ট্রেন লক্ষ্য করে পরপর তিনটি বোমা ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ৷ সকাল ৮:৪৫ এর নৈহাটি লোকালের নিত্য যাত্রীদের।

ট্রেনের চালক বাধ্য হয়ে ট্রেন দাঁড় করিয়ে দেন। ওই ট্রেন লক্ষ্য করে পাথর বৃষ্টিও হয় বলে অভিযোগ নিত্য যাত্রীদের। ভয়ে, আতঙ্কে ওই ট্রেন থেকে নেমে পড়েন নিত্য যাত্রীরা।