ব্যারাকপুর: বিজেপি কর্মীদের বিক্ষোভ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে রবিবার দুপুরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল উত্তর ২৪ পরগনার ঘোলা থানা চত্বরে । চলতি মাসের গত ১২ নভেম্বর সোদপুর ঘোলায় আক্রান্ত হন বিজেপির এক সক্রিয় কর্মী ।

পরিতোষ বিশ্বাস নামে ওই ব্যক্তির পায়ে গুলি লাগে। অভিযোগ ওঠে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতেই আক্রান্ত হয়েছেন পরিতোষ বিশ্বাস । সেদিনের ঘটনার পর পরিতোষ বিশ্বাসকে হাসপাতালে ভর্তি করেন অন্যান্য বিজেপি কর্মীরা । সেখানে তার অপারেশনের পর আজ তাঁকে সঙ্গে নিয়ে বারাকপুরের সংসদ অর্জুন সিং ঘোলা থানায় পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার বিরুদ্ধে মিছিল করে আসেন এবং থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান ।

অসুস্থ পরিতোষ বাবুকে হুইল চেয়ারে করে থানায় নিয়ে আসে বিজেপি কর্মীরা। এরপর সেদিনের গুলি চালানোর ঘটনায় দোষীদের নাম দিয়ে ঘোলা থানার পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন বিজেপি কর্মীরা। বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, “এই বাংলায় গনতন্ত্রকে শেষ করে ফেলেছে তৃণমূল । পুলিশ তৃণমূলের গুন্ডাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয় না । তবু ও কাগজপত্রে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার দাবি করছি আমরা । এই গুলি চালনার ঘটনায় ৮/৯ জন অভিযুক্ত আছে । দেখা যাক পুলিশ কি কাজ করে । আমরা আমাদের কাজ করলাম, পুলিশের নিরপেক্ষ ভূমিকা আশা করি ।”

এদিন অর্জুন সিংহের সঙ্গে ঘোলা থানা অভিযানে পানিহাটি অঞ্চলের কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী অংশ নেয় । এই অভিযোগ দায়েরকে কেন্দ্র করে ব্যপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।