কলকাতা:  লোকসভা ভোটে সদ্য বিজেপিতে আসা অর্জুনকে সামনে রেখেই এগোতে যায় বঙ্গ বিজেপি শিবির। বিশেষ করে অবাঙালিদের ভোট টানার চেষ্টা চালাচ্ছে মুকুল-দিলীপরা। আর সেই লক্ষ্যেই রবিবার রিষড়াতে জনসভা করেন প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিং। রিষড়ায় ২৭ শতাংশ ভোট হিন্দিভাষীদের। গত লোকসভা ভোটে এই এলাকা থেকে লিড পেয়েছিলেন বিজেপির বাপ্পি লাহিড়ী। যদিও বিধানসভা নির্বাচনে তা ধরে রাখতে পারেনি গেরুয়া শিবির। এবারের লোকসভা ভোটে তা ধরতে অর্জুন সিংকে কাজে লাগাতে মরিয়া বিজেপি শিবির।

রিষড়ার সেই জনসভা থেকে অর্জুন সিং দাবি করেন, ‘২৩ মে লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর রাজ্যে আর তৃণমূল সরকার থাকবে না। ১০০ জন বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য লাইন দিয়ে আছেন। আমাদের নেতা মুকুল রায়ের কাছে সেই তালিকাও রয়েছে।’ এহেন শুধু বিস্ফোরক দাবিই নয়, হঠাত তাঁর দলবদল নিয়ে সাফাইও দিয়েছেন ভাটপাড়ার এই দাপুটে নেতা।

তাঁর সাফাই, ‘আমি ৩০ বছর ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাজনীতি করছি। ঘাম-রক্ত ঝরিয়েছি তৃণমূলের জন্য। কিন্তু দল ক্ষমতায় আসার পর প্রকৃত কর্মীদের দূরে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কয়েক জন নেতা দলকে নিজের সম্পত্তি মনে করছেন। মা-মাটি-মানুষ নন, দলের মূলমন্ত্র ছিল মানি, মানি, মানি।’

সভায় হিন্দমোটর, বেলুড়, ভদ্রেশ্বর থেকে আসা শতাধিক তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগ দেন। একই সঙ্গে বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকারকে জেতানোর আবেদনও জানান অর্জুন সিং।