স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ভাটপাড়া পৌরসভায় অনাস্থা আনুক তৃণমূল। বুঝিয়ে দেব কত ধানে কত চাল? শুক্রবার দুপুরে ভাটপাড়া পৌরসভায় দলীয় কাউন্সিলরদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে ঠিক এই ভাষায় তৃণমূলকে চালেঞ্জ ছুঁড়লেন বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। ভাটপাড়া পৌরসভার কাউন্সিলরদের নিয়ে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে দড়ি টানাটানি অব্যাহত। এরই মধ্যে শুক্রবার ভাটপাড়া পৌরসভায় দলীয় কাউন্সিলরদের সঙ্গে দেখা করতে যান তিনি। প্রথমেই বিজেপির ওই সাংসদ পৌরসভার পুরপ্রধান সৌরভ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। তারপর কথা বলেন ভাটপাড়া পৌরসভার বর্তমান বিজেপি কাউন্সিলরদের সঙ্গে ।

সম্প্রতি ভাটপাড়া পুরসভার বেশ কিছু কাউন্সিলর নতুন করে তৃণমূলে যোগ দেন। কলকাতায় গিয়ে তাঁরা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের হাত ধরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলের যোগদান করেন। এদিকে তৃণমূলে ওই দলছুট কাউন্সিলররা যোগ দেওয়ায় তৃণমূল দাবি করতে থাকে বর্তমানে তৃণমূলের হাতে ভাটপাড়া পুরবোর্ড দখল নেওয়ার মত কাউন্সিলর রয়েছে । কিন্তু তৃণমূলের সেই সংখ্যাতত্ত্বকে মানতে নারাজ বিজেপি’র সাংসদ অর্জুন সিং ।

তিনি এদিন ভাটপাড়া পুরসভায় দলীয় কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘তৃণমূল সাহস থাকলে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে এসে দেখাক। তিনি আরও বলেন, ওরা যে সতেরো জন কাউন্সিলর ওদের পক্ষে আছে বলে দাবি করছে, তাদের মধ্যে পাঁচজন কাউন্সিলর আমার লোক । তৃণমূলের সঙ্গে আসলে বারোজন কাউন্সিলর আছে । অর্জুন সিং বলেন যদি অনাস্থা আনে, দেখবেন আরও কয়েকজন কাউন্সিলর আমাদের পক্ষেই থাকছে। গতবার ওদের ২৬/০ তে তৃণমূল হেরেছিল । এখন তৃণমূলের একজন মূর্খ মন্ত্রী ববি হাকিম আছে যে কলকাতায় বসে ডায়লগ দেয় আর আনন্দ পায়, ওকে আনন্দ পেতে দিন । ভোট আসলে আমি আমার এলাকায় ওদের বুঝিয়ে দেব কত ধানে কত চাল হয়।”

এদিকে অর্জুন সিংয়ের এই চ্যালেঞ্জকে পাল্টা কটাক্ষ করেছেন ভাটপাড়ার তৃণমূল নেতা সোমনাথ শ্যাম । তিনি বলেন, “অর্জুন সিং নিজে মূর্খ বলেই অন্যকে মূর্খ ভাবছে । ও কোন ক্লাস পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে আগে প্রমাণ দিতে বলুন । আর অর্জুন এর আগেও অনেক ভাট বকেছে, এই এলাকার কাঁচরাপাড়া থেকে, নৈহাটি, হালিশহর, গারুলিয়া সব পুরসভা পুনরুদ্ধার করেছি, এই ভাটপাড়াতে দলের নির্দেশে সময়মত অনাস্থা আনব, দখল নেব । বিজেপির আরও পাঁচজন কাউন্সিলর আগামীদিনে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করবে ।”

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ