এই দৃশ্য ভবিষ্যতে আর দেখা যাবে না!

বুয়েনস আইরস: দেওয়াল লিখন আগেই হয়ে গিয়েছিল৷ এবার পাকাপাকি ভাবে কোচের সঙ্গে হ্যান্ডসেক সেরে ফেলার পালা৷ রাশিয়া বিশ্বকাপের খারাপ পারফর্ম্যান্সের জন্য কোচ ছাঁটাইয়ের পথে এক পা বাড়িয়ে রাখল আর্জেন্তিনা৷ চাকরি যেতে চলেছে জর্জ সাম্পাওলির৷

স্প্যানিশ মিডিয়ায় প্রকাশিত খবর অনুয়ায়ী সাম্পাওলির সঙ্গে বৈঠকের পর তাঁর বকেয়া মিটিয়ে দিয়ে কোচ ছাঁটাই করতে চলেছে আর্জেন্তিনা৷ জানা গিয়েছে৷ সাম্পাওলির সঙ্গে ১.২ মিলিয়ন পাউন্ডের রফা করে কোচ বিদায় করতে চায় মেসিদের দেশের ফুটবল সংস্থা৷ সাম্পাওলির সঙ্গে আরও চার বছরের চুক্তির মেয়াদ থাকলেও বিশ্বকাপে হতশ্রী পারফরম্যান্সের পর তাঁকে সঙ্গী করে আর এগোতো চাইছে না মেসিদের দেশের ফুটবল ফেডারেশন৷

আরও পড়ুন- মেসিদের ফ্রি তে কোচিং করাতে চান ‘ফুটবল ঈশ্বর’

আর্জেন্তাইন ফুটবল সংস্থার পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ‘চলতি জুলাইয়ের শেষেই নতুন কোচ পেতে পারেন মেসিরা৷ সেক্ষেত্রে জুলাইয়ের শেষে এক্সিকিউটিভ মিটিংয়েই সাম্পাওলির ভবিষ্যত নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে৷’

অন্যদিকে বিশ্বকাপ শেষে আর্জেন্তাইন দলের অন্দরমহলের দ্বন্দ্বও ফাঁস হয়ে গিয়েছে৷ জানা গিয়েছে বিশ্বকাপে দলে সাম্পাওলির দুই পছন্দের ফুটবলারকে খেলানো না-পসন্দ ছিল মেসির৷

আরও পড়ুন- মেসিদের কোচ হতে চান আর্জেন্তাইন তারকা

বিশ্বকাপে কোচ হিসেবে সাফল্য পাননি সাম্পাওলি৷ তাঁর কোচিংয়ে শেষ ষোলোতেই সফর শেষ আর্জেন্তিনার৷ রাশিয়ার মাটিতে আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে ড্র, এরপর ক্রোয়েশিয়ার কাছে ০-৩ হার ও গ্রুপের শেষ ম্যাচে নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে ২-১ জয়৷ সেকেন্ড বয় হিসেবে গ্রুপের গেঁড়ো টপকে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে প্রি-কোয়ার্টারে এরপর মুখ থুবড়ে পড়ে মেসিরা৷ সেই ম্যাচে গ্রিজমানদের কাছে হার ৩-৪ ব্যবধানে৷ কোচ সাম্পাওলির কোচিং নিয়েও প্রশ্নচিহ্ন উঠছে৷ দিবালার মতো তরুণ ফুটবলারকে বিশ্বকাপের মঞ্চে সেভাবে ব্যবহারই করেননি কোপা জয়ী কোচ৷ অন্যদিকে গোলকানা হিগুয়েনকে একাধিক ম্যাচে খেলিয়ে গিয়েছেন৷ সমর্থক থেকে প্রাক্তনী আর্জেন্তিনার হতশ্রী পারফর্ম্যান্সে হতাশ৷ সব মিলিয়ে আর্জেন্তাইন ফুটবল এখন নতুন ভোরের অপেক্ষায়!

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।