তাইপেই: তাইওয়ানের তাইচুং প্রদেশে আদিম কোনও জন গোষ্ঠীর বসবাস ছিল এ কথা জানা ছিল প্রত্নতত্ত্ববিদদের। কিন্তু, সেটা খুঁজতে গিয়ে ৪ হাজার ৮০০ বছরের ইতিহাস বেরিয়ে আসবে ভাবতে পারেনি কেউ। মাটি খুঁড়তে খুঁড়তে গিয়ে উঠে এল, এক মা তাঁর শিশুকে কোলে করে নিয়ে আছে এমন একটি কঙ্কাল।

তাইওয়ান ন্যাশনাল মিউজিয়াম অফ ন্যাশনাল সাইন্সের অ্যানথ্রপলজি বিভাগের প্রধান চু হেই লি ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে জানিয়েছেন, এই স্থান থেকে উদ্ধার হওয়া এই জীবাশ্মটি সবচেয়ে অবাক করা। যা দেখে সেই সময় ওই স্থানে উপস্থিত সমস্ত  প্রত্নতত্ত্ববিদ কিছুটা হতবাক হয়েছিল। কারণ, অদ্ভুতভাবে কঙ্কালটিতে মা তাঁর কোলের শিশুর দিকে তাকিয়ে আছে।

জানা গিয়েছে, ২০১৪ সালের মে মাস থেকে তাইওয়ানের তাইচুং প্রদেশে খননকার্য শুরু করেছিল ন্যাশনাল মিউজিয়াম অফ ন্যাশনাল সাইন্সের সদস্যরা। জীবাশ্মগুলির সঠিক বয়স নির্ধারণে ব্যবহার করা হয়েছে কার্বন ডেটিং পদ্ধতি।

পড়ুন আরও কিছু সেরা  অফবিট!

১. কবর থেকে দেহ তুলে আচার উৎসব ইন্দোতে

২. জানেন এই পোশাক সম্পূর্ণ দুধের তৈরি!

৩. দুনিয়ার ৭ আজব এয়ারলাইনস

৪. লিলিপুট পোল ডান্সারের চমক  

৫. ‘জেসিকা’ সাজতে পাঁজরের হাড় বাদ দিলেন মডেল

৬. নাকের গঠন দেখে মানুষ চিনবেন কী করে?

৭. শহরের বুকে নিশ্চিতে প্রেম করার আপনার অজানা অসাধারণ ছয়টি জায়গা

৮. এবার অন্তর্বাসেই মিলবে যৌন সুখানুভূতি!

৯. মাটির নীচে শতাব্দী প্রাচীন ঝকঝকে শহর  

১০. যে শহরে নগ্ন হয়ে ঘুরতে একদম বাধা নেই

১১. ভারতের যেসব জায়গায় প্রবেশাধিকার নেই ভারতীয়দের

১২. কয়েন চিনতে চোখ রাখুন চিহ্নতে

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.