স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মহুয়া মৈত্রর পর এবার অপরূপা পোদ্দার। করোনা আবহে রাজ্যপালকে ট্যুইটারে আক্রমণ করলেন হুগলির আরামবাগের তৃণমূল সাংসদ। টুইটারে রাজ্যপালের উদ্দেশ্যে তিনি লিখেছেন, “আপনার কাছে আমাদের বিনীত নিবেদন, আপনি বাংলার আকাশ আর দূষিত করবেন না!নিজের মস্তিষ্ককে কোয়ারেন্টাইনে রাখুন।”

ট্যুইটারে অপরূপা লিখেছেন, “প্রিয় রাজ্যপাল মহাশয়, আমরা বাংলার মানুষ চাই, আপনি ৭০ বছর বয়সে ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন! কিন্তু দিন দিন আপনি যেভাবে, অবসর জীবনে, শিশুসুলভ আচরণ করে চলেছেন এবং বিজেপির গেরুয়া ধব্জা নিয়ে ছোটাছুটি করে চলেছেন,মার্গ-দর্শকের ভূমিকায়, তা আমরা বুঝে গেছি। বিজেপি দলেও আজ, আপনার মতো বয়স্ক নেতার আর কোনও স্থান নেই, সেটা জেনেও। আপনার মস্তিষ্কের দ্রুত সুস্থতা কামনা করে পশ্চিমবাংলার আপামর মানুষ। আপনি নিজেই আপনার মস্তিষ্ককে কোয়ারেন্টাইনে রাখুন।

অপরূপা লিখেছেন, “আপনার কাছে আমাদের বিনীত নিবেদন, আপনি বাংলার আকাশ আর দূষিত করবেন না! বাংলার জল-বাংলার মাটি-বাংলার মানুষ-সর্বোপরি বাংলার মা-কে আপনার থেকে মুক্তি দিন, যাতে বাংলার মানুষ আপনাকে ক্ষমা করে।” করোনা পরিস্থিতিতে নবান্ন-রাজভবন সংঘাত চরমে পৌঁছেছে। রাজ্যে রেশন দুর্নীতি থেকে করোনায় মৃতের সংখ্যা গোপন করা, একাধিক অভিযোগে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন তিনি।

রাজ্যপালের আচরণে ক্ষুব্ধ হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শনিবার তাঁকে ১২ পাতার চিঠি দিয়েছেন। তাতে তিনি রাজ্যপাল পদটির সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতার কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, যে ভাষায় তাঁকে আক্রমণ করেছেন ধনকড়, স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে আর কোনও রাজ্যপাল এমন আচরণ করেননি।

মুখ্যমন্ত্রীর এই কড়া চিঠির পরই রাজ্যপালকে টুইট আক্রমণ করেছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তিনি লিখেছে,”রাজ্যপাল সাহেব, আপনি ভুল মানুষকে আক্রমণ করার জন্য বেছে নিয়েছেন। এই মুহূর্তে নিজের ও বাংলার জন্য আপনি সবথেকে ভালো যেটা করতে পারেন, তা হল মাস্ক পড়ে বাড়িতে থাকুন।”

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প