Anushka Sharma

মুম্বইঃ সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ অ্যাক্টিভ বলিউড অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা (Anushka Sharma)। সম্প্রতি অভিনেত্রী একটি সাহায্যকারী নম্বর শেয়ার করেছেন নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে। প্রত্যাশি মা বা গর্ভবতী মহিলাদের জন্যেই এই সাহায্যকারী নম্বর শেয়ার করেছেন তিনি। এই করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে যেকোন রকম মেডিক্যাল সাহায্যের জন্যে তাদের যোগাযোগ করতে বলেছেন ওই নম্বরে।

‘ন্যাশনাল কমিশন ফর ওমেন’ (National Commission for Women) এর তরফ থেকে ‘HappyToHelp’ নামে একটি নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে প্রত্যাশি মায়েদের জন্যে। এই মহামারীর সময় যাতে গর্ভবতী মহিলারা দ্রুত মেডিক্যাল সাহায্যের জন্যে যোগাযোগ করতে পারেন, সেই উদ্দেশেই ‘ন্যাশনাল কমিশন ফর ওমেন’ এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। সদ্য মা হওয়া অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা তাদের এই উদ্যোগের যাবতীয় তথ্য সোশ্যাল সাইটে শেয়ার করেছেন। তিনি লিখেছেন ‘@ncwindia has launched a 24×7 WhatsApp helpline number – 9354954224 for their #HappyToHelp initiative which is for expectant mother in need of medical aid’। সঙ্গে ন্যাশনাল কমিশন ফর ওমেনের একটি পোস্টারও শেয়ার করেছে।

অনুষ্কা একটি ভাবে সহযোগিতা করছেন করোনা মোকাবিলায়। স্বামী বিরাট কোহলির (Virat Kholi) সঙ্গে মিলে একটি উদ্যোগ নিয়েছেন। করোনা যুদ্ধে তারা একটি কোভিড তহবিল গঠন করেছেন। এই উদ্যোগের নাম দিয়েছেন ‘InThisTogether’। ৭ কোটি টাকা সংগ্রহের উদ্দেশে গঠিত এই তহবিলে তারা ২ কোটি তারা অনুদান দিয়েছেন। পাশাপাশি তাদের সকল অনুগতদের অনুরোধ করেছেন, প্রত্যেকে যেন নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী দান করেন তাদের এই তহবিলে। করোনার বিরুদ্ধে এই কঠিন লড়াইয়ে কোন মুল্যই ছোট নয়। সবাই একসঙ্গে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলে অনেক বেশি সহজ হবে করোনাকে পরাস্ত করতে। এমন সুরই শোনা গিয়েছে এই ক্রিক – বলি দম্পতির গলায়। ইতিমধ্যেই ৭ কোটির লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ১১ কোটিতে পৌঁছে গিয়েছে তাদের তহবিল।

এই বছর সদ্য মা হয়েছেন অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা। এছাড়া নিজের একটি প্রযোজনা সংস্থা আছে তাঁর। যার নাম ‘ক্লিন স্লেট ফিল্মস’ (Clean Slate Films)। অভিনয়, প্রযোজনা, সংসার, বাচ্চা সবই নিজের দক্ষ হাতে সামলাচ্ছেন অভিনেত্রী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.