স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: বিতর্ককে তিনি সঙ্গে নিয়ে ঘোরেন৷ যেখানেই তিনি মুখ খোলেন, সেখানেই তাঁর মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক হয়৷ সেই নিয়মের ব্যতিক্রম হয়নি মঙ্গলবারও৷

এদিন সিউড়িতে দলের এক কর্মসূচিতে যোগ দিতে গিয়েছিলেন বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল৷ সেখানেই বক্তৃতা করতে গিয়ে বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন৷

আরও পড়ুন: সাহস থাকলে বলো! মুকুলকে নজিরবিহীন আক্রমণ কেষ্টার

রাজ্য রাজনীতিতে কেষ্ট নামে পরিচিত তৃণমূলের এই দাপুটে নেতা বিজেপির লকেট চট্টোপাধ্যায়কে ‘আদর’ করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন৷ তবে ছোট বোনের মতো তিনি বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রীকে ‘আদর’ করতে চান৷ প্রসঙ্গত, রবিবার দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে বীরভূম গিয়েছিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়৷ সেখানে তিনি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন৷ সম্প্রতি বীরভূমে ধর্ষণের শিকার এক নাবালিকার মৃত্যু হয়৷ ওই ঘটনায় অনুব্রত তথা শাসক দলের নীরবতা নিয়েই প্রশ্ন তোলেন লকেট৷ হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি অনুব্রতর কানে তালা দিয়ে চাবি পুকুরে ফেলে দেওয়ার কথা বলেছিলেন৷ আর এই কাজ মহিলারাই করবে বলেও তিনি জানিয়েছিলেন৷

আরও পড়ুন: বিশ্ববাংলা বিতর্ক কাটিয়ে জেলা সফরে অভিষেক

মঙ্গলবার অনুব্রত মণ্ডল সেই প্রসঙ্গেই তোপ দেগেছেন৷অনুব্রত জানান, একটা মহিলা, তিনি নাকি বলেছেন, অনুব্রতকে মহিলা দিয়ে মারা হবে৷ নাম না করলেও বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রীকে উদ্দেশ্য করেই এর পর কেষ্ট মণ্ডল বলেন, ‘‘বাচ্চা মেয়ে৷ বুদ্ধিশুদ্ধি নেই৷ ছোট বোনের মতো আদর করে দেব৷আর কিছু বলব না৷’’ তবে তিনি যে বিজেপি বা লকেটকে বিন্দুমাত্র গুরুত্ব দিতে নারাজ, তা-ও নিজের বক্তব্যে জানাতে ভোলেননি বীরভূমের দাপুটে নেতা৷ অনুব্রত বলেন, ‘বোকা মেয়ে হলে তারা অনেক কিছু ভুলভাল বলে ফেলে৷ দোষ নেই৷ অল্প বয়স৷ বয়স হয়নি, কথা জানে না৷’’

আরও পড়ুন: উত্তরে গেরুয়া ঝড় তুলে মাঠে নামছেন বাবুল-দিলীপ-জয়

অন্যদিকে লকেটও অনুব্রতর বক্তব্যকে গুরুত্ব দিতে নারাজ৷ আর এই ধরনের প্রতিক্রিয়া দিতেও তাঁর রুচিতে বাধে বলে এদিন জানিয়েছেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী৷ তবে তিনি জানিয়েছেন, এই ধরনের কথা আবার বললে জবাব বাংলার মানুষই দিয়ে দেবে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।