স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নির্বাচন কমিশনকে শোকজের জবাব দিলেন অনুব্রত মণ্ডল। শুক্রবার নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত জাবাব দিয়েছে বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি।

বিতর্কিত মন্তব্য করে বহুবার সংবাদের শিরোনামে এসেছেন দিদির কেষ্ট৷ এবার বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য নির্বাচন কমিশনের নজরে পড়লেন৷

বিরোধীদের দাবি মেনেই এই নোটিশ পাঠানো হয়েছিল অনুব্রত মণ্ডলকে৷ নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগে তাকে নোটিশ দিয়ে তার জবাব তলব করা হয়েছিল। জেলা প্রশাসনকে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল বলে শোনা গিয়েছিল।

গত সোমবার বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতিকে নোটিশ পাঠিয়েছিল কমিশন। দিন চারেক পরে সেই নোটিশের জবাব দিয়েছেন অনুব্রতবাবু। বিরোধীদের পাচন দেওয়া এবং নকুল দানা খাইয়ে দেওয়া নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন কেষ্ট। যা নিয়ে কমিশনের কাছে অভিযোগ করে বিরোধীরা। যার পরিপ্রেক্ষিতে অনুব্রত মণ্ডলকে শোকজ করে কমিশন। শুক্রবার সেই শোকজের জবাব দিয়েছেন তিনি। যদিও জবাবে ঠিক কী জানিয়েছেন তা এখনও জানা যায়নি।

অভিযোগ, সিউড়ির সভায় সিপিএমের এক নেতার বিরুদ্ধে বেশ কিছু প্ররোচনা মূলক মন্তব্য করেছেন অনুব্রত মণ্ডল৷ এছাড়া নকুলদানা খাওয়ানোর নিদান দিয়েছেন অনুব্রত মন্ডল৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে জল-নকুলদানা দেওয়ার কথাও বলেছেন তিনি৷ শুধু তাই নয়, তৃনমূল কর্মীরা রাস্তায় ‘রুটমার্চের সময় কেন্দ্রীয় বাহিনী’কে স্যালুট করবে৷ তবে এই মন্তব্যেরই পালটা জবাব দিয়েছেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু৷

মেদিনীপুরের একটি সভায় সায়ন্তন বলেন, নকুলদানা নয়, কেন্দ্রীয় বাহিনীর হাতে নুন তুলে দেওয়া হবে। কারণ, নির্বাচনে গোলমাল করলে, ওদেরকে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাস্তায় ফেলে মারবে৷ এরপর যাতে নুন দিতে পারে তারজন্য তাদের হাতে নুন তুলে দেওয়ার হবে৷