স্টাফ রিপোর্টার, বোলপুর : বিজেপির রথযাত্রার আগে ঢোল করতাল নিয়ে তৈরি তৃণমূল৷ বুধবার থেকেই বীরভূম জেলার কীর্তনিয়াদের হাতে তুলে দেওয়া হবে এই নতুন খোল করতাল৷

বিজেপির রথযাত্রার ঠিক আগেই বুধবার বীরভূম জেলার কীর্তনীয়াদের বিলি করা হবে ৪০০০ খোল ও ৮০০০ করতাল৷ এই কর্মসূচির কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন অনুব্রত মণ্ডল৷ বলা হয়েছিল বীরভূম জেলার ১৯টি ব্লকে বিলি করা হবে খোল করতাল৷

সেইমত বুধবার বোলপুর ডাকবাংলো মাঠে এক বিরাট অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে৷ যেখানে অনুব্রত মণ্ডল দাঁড়িয়ে থেকে কীর্তনীয়াদের হাতে তুলে দেবেন ৪০০০ খোল ও ৮০০০ হাজার করতাল৷

জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বেশ কিছুদিন আগে ঘোষণা করেছিলেন এবার কীর্তনীয়া দলকে দলের পক্ষ থেকে খোল করতাল দেওয়া হবে৷ সেই মত নদীয়ার নবদ্বীপ থেকে খোল এবং মুর্শিদাবাদ জেলার খাগড়া থেকে করতাল নিয়ে যাওয়া হয়েছে বোলপুরে৷ লোকসভা নির্বাচনের আগেই বীরভূম জেলার ১৯টি ব্লকে ৪০০০ কীর্তনীয়াকে একটি করে খোল ও একজোড়া করতাল দেওয়া হবে৷

বীরভূম জেলা তৃণমূলের পক্ষ থেকে এর আগে একের পর এক কখনও ব্রাহ্মণ সম্মেলন তো, কখনো আদিবাসী সম্মেলন, কখনো বা রাজপুত সম্মেলন করা হয়েছে৷ বোলপুরে ব্রাহ্মণ সম্মেলনে পুরোহিতদের হাতে গীতা, নামাবলী এবং স্বামী বিবেকানন্দের ছবি উপহার দেওয়ার পাশাপাশি তাদের পেট পুরে ভোজনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল৷

তৃণমূল সূত্রের খবর, প্রতিটি খোলের দাম ৪ হাজার টাকা ও প্রতি জোড়া করতালের দাম ৫০০ টাকা৷ কীর্তনীয়াদের বিলি করার জন্য ইতিমধ্যেই প্রায় দুই কোটি টাকার খোল করতাল কিনেছে বীরভূম জেলা তৃণমূল৷ যা বুধবার বিলি করা হবে কীর্তনীয়াদের মধ্যে।

বিজেপি জেলা সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, “এটা কোনও সরকারি উদ্যোগ নয়৷ খবর পেয়েছি জেলা তৃণমূল এই খোল করতাল বিলিতে ২ কোটি টাকা খরচ করছে৷ এই ২ কোটি টাকার উৎস কোথায়? সবই সাধারণ মানুষ বুঝতে পারছে, বলার আর কিছু নেই৷”