সিউড়ি: করোনাকালেও সরগরম রাজ্য-রাজনীতি। মন্তব্য-পাল্টা মন্তব্যে শোরগোল। দিলীপ ঘোষকে ভাইরাস বলে কটাক্ষ অনুব্রত মণ্ডলের। পাল্টা তৃণমূল নেতাকে বিঁধে দিলীপের জবাব, ‘ভলিউম কমেছে। এরপর স্পিকারটাও কেটে যাবে।’’

বিধানসভা ভোট যত এগোচ্ছে রাজনৈতিক আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণের সুর ততই চড়া হচ্ছে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে ভাইরাসের সঙ্গে তুলনা করলেন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

বিজেপি সাংসদকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, ‘‘দিলীপ ঘোষের মতো ভাইরাসে পশ্চিমবঙ্গে আর আছে নাকি?’’ পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিতেও সময় নেননি বিজেপি রাজ্য সভাপতি। অনুব্রত মণ্ডলকে বিঁধে তাঁর কটাক্ষ, ‘‘এখন দেখছি ভলিউম অনেকটাই কমেছে। এবার স্পিকারটাও ধীরে ধীরে কেটে যাবে।’’

বিরোধীদের আক্রমণে বরাবরই ভিন্ন মেজাজে থাকেন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এর আগে তাঁর ‘চড়াম-চড়াম’, ‘গুড়-বাতাসা’ ডায়লগ রাজ্য রাজনীতিতে চমক এনেছে। একাধিক সময় দিলীপ ঘোষের কথাতেও বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

বিধানসভা ভোট যতই এগোচ্ছে রাজনৈতিক উত্তেজনার পারদ ততই বাড়ছে। জেলায়-জেলায় ঘুরছেন বিজেপি নেতারা। সংগঠনকে চাঙ্গা করতে একের পর এক কর্মীসভা করছে গেরুয়া শিবির। বীরভূমে বিজেপি এবার ভালো ফল করবে বলে আশাবাদী দিলীপ ঘোষ।

তৃণমূল বীরভূমে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করছে বলে অভিযোগ দিলীপ ঘোষের। একুশের ভোটে গোটা বাংলাতেই বিজেপি ভালো ফল করে সরকার গড়বে বলে দাবি দিলীপ ঘোষের।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।