স্টাফ রিপোর্টার, দার্জিলিং:  পাহাড়ে বনধ তুলতে কোমর বাঁধলেন মোর্চার বিদ্রোহী নেতা বিনয় তামাং৷ বনধ তুলতে পাহাড়ের বাসিন্দাদের অভয় দিতে আজ সকালে অনুগামীদের নিয়ে বিশাল মিছিল করেন মোর্চার বহিষ্কৃত নেতা বিনয় তামাং৷ দার্জিলিং থেকে কার্শিয়াং পর্যন্ত একটি মিছিল করেন৷ কথা বলেন স্থানীয়দের সঙ্গে৷ দোকান খুলিয়ে চাও খান তিনি৷ স্থানীয়দের মন পেতে দীর্ঘক্ষণ তাঁদের সঙ্গে আড্ডাও দেন৷

পাহাড়ে বনধ আর বরদাস্ত করা হবে না বলেও এদিন সাফ জানিয়েদেন তিনি৷ মন্তব্য করেন, ‘‘ বনধ নিয়ে পাহাড়ের মানুষকে ভুল বোঝানো হচ্ছে৷ বনধ তুলে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে আন্দোলন করতে হবে আমাদের৷ লাগাতার বনধ ডেকে পাহাড়ের সমস্যা মিটবে না৷’’ মোর্চাকে আক্রমণ করে বিনয়ের মন্তব্য, ‘‘বনধের নামে মোর্চা মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে৷ ভয় দেখিয়ে পাহাড়ে বনধ করা যাবে না৷ মানুষই আজ বনধ তুলে দিয়েছে৷’’

বৃহস্পতিবার সকাল বিময় তামাংয়ের বনধ বিরোধী মিছিল দেখে এগিয়ে আসেন অনেকেই৷ মিছিলের সমর্থন দেখে বহু ব্যবসায়ীই দোকানি খুলতে শুরু করেন৷ গুরুংয়ের রক্তচক্ষু উপেক্ষা সরকারি দফতর, স্কুল, কলেজ এমনকী জিটিএ দফতরেও কাজে যোগ দিতে শুরু করেছেন৷ দীর্ঘ ৯০দিন পরে দার্জিলিং থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত শুরু হয়েছে বাস চলাচলও। এমনকী দোকানপাটও খুলতে শুরু করেছে শৈলশহরে। দার্জিলিং ও মিরিকে স্কুলগুলিও খুলেছে৷ বন্ধ থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি চালু করার প্রস্তুতিও চলছে৷

এদিন মিছিল শেষ শিলিগুড়ি যান বিনয় তামাং৷ পৃথক রাজ্যের দাবিতে আন্দোনল করে গ্রেফতার হওয়া ১২০ জন মোর্চা কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে সংশোধনাগারে দেখা করেন৷ জেল বন্দি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করার পর তাঁদের মুক্তিরও দাবি তোলেন তিনি৷