স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে গত শনিবার মহা সমাবেশ করেছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। সেই মঞ্চ ছিল অবিজেপি জোটের মঞ্চ। যেখানে হাজির ছিলেন কংগ্রেস সহ দেশের বিভিন্ন অবিজেপি দলের তাবড় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

সেই ঘটনার দিন দুই পরেই দেখা গেল অন্য ছবি। রাজ্যের শাসক তৃণমূলের বিরুদ্ধেই আইন অমান্য করল বাম-কংগ্রেস। এই দুই রাজনৈতিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত হল বিজেপিও। তাও আবার ব্রিগেড থেকে ৩০ কিলোমিটার মতো দূরত্বের মধ্যেই।

বিভিন্ন দাবি নিয়ে রাজ্য সরকার বিরোধী ২১ টি সংযুক্ত শ্রমিক সংগঠনের ডাকে সোমবার উত্তর ২৪ পরগণার বারাকপুরে আইন অমান্য কর্মসূচি পালন করল বাম, কংগ্রেস ও বিজেপির শ্রমিক সংগঠনগুলি৷ তাদের দাবি সম কাজে সম বেতন, আঠেরো হাজার টাকা শ্রমিকদের ন্যূনতম মাসিক বেতন, ছয় হাজার টাকা অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের পেনশন৷ এ ছাড়াও বেশ কয়েকটি অন্যান্য শ্রমিক সংগঠনও এই কর্মসূচিতে যোগদান করেছিল।

সোমবারের আইন অমান্য কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন বাম জমানার প্রাক্তন শ্রম মন্ত্রী অনাদি শাহু, প্রাক্তন সাংসদ তড়িত বরণ তোপদার, সিপিএম নেত্রী গার্গী চট্টোপাধ্যায়। বিরোধী দলগুলির শ্রমিক সংগঠনের ডাকে বেশ কয়েকশো শ্রমিক জড়ো হয়েছিল বারাকপুর স্টেশন চত্বরে৷ সেখান থেকে বেরিয়ে চিড়িয়ামোড়ের দিকে যাওয়ার কথা ছিল তাদের৷ পথে সুকান্ত সদনের সামনে তাদের মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। এরপর মিছিলে উপস্থিত বিক্ষোভকারীদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারির সময় পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও হয় ওই বিক্ষোভকারীদের। বারাকপুর এসএন ব্যানার্জী রোডে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যানজটের সৃষ্টি হয়৷ সেই সময় কয়েকশো বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ টিটাগড় থানায় নিয়ে যায়৷ পরে তাদের ব্যক্তিগত বন্ডে থানা থেকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

সিপিএম নেত্রী গার্গী চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘রাজ্য জুড়ে শ্রমিকরা শোষিত ও বঞ্চিত। শ্রমিকদের স্বার্থে আমাদের এই লড়াই সংগ্রাম। বর্তমান রাজ্য সরকারের আমলে জুটমিল গুলো ধুঁকছে। তাই আজ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আমরা আইন অমান্য কর্মসূচি পালন করলাম।’