কলকাতা: সইপর্ব মিটে গিয়েছিল আগেই। কোচ রবি ফাওলার ও সাপোর্ট স্টাফেদের সঙ্গে গোয়াতে পৌঁছে জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশও করে গিয়েছেন দু’জনে। কিন্তু ক্লাবের নাম এবং নয়া লোগো সরকারিভাবে প্রকাশ না হওয়ায় নয়া ফুটবলারদের নাম অফিসিয়ালি ঘোষণা করার পক্ষপাতী ছিল না ইস্টবেঙ্গল। শনিবার সকালে স্পোর্টিং ক্লাব ইস্টবেঙ্গল নামে আত্মপ্রকাশের পরেই সই হয়ে যাওয়া ফুটবলারদের নাম ঘোষণা শুরু করে দিল কলকাতা জায়ান্টরা।

শনিবার সকালে এসসি (স্পোর্টিং ক্লাব) ইস্টবেঙ্গল নামে নিজেদের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া পেজে শতবর্ষে পা দেওয়া ক্লাবকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে আইএসএল। একাদশ দল হিসেবে ইস্টবেঙ্গল ঠাঁই পেয়েছে আইএসএলের সোশ্যাল মিডিয়া কভার পেজেও। ইস্টবেঙ্গলের আইএসএলে আত্মপ্রকাশ নিয়ে নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান সুপার লিগ। সবমিলিয়ে সকাল থেকেই সাজো-সাজো রব এবং উচ্ছ্বাস লাল-হলুদ জনতার হৃদয়ে।

এই সবকিছুর পর সমর্থকেরা অপেক্ষা করছিলেন ফুটবলারদের নাম ঘোষণার। অবশেষে সন্ধের দিকে এল জোড়া ঘোষণা। উইগান অ্যাথলেটিক থেকে আসা অ্যান্থনি পিলকিংটন এবং ব্রিসবেন রোর থেকে আসা অ্যারন আমাদি হলওয়ের ক্লাবে অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি অফিসিয়াল ঘোষণা করা হল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া পেজে। টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক পেজে ঘটা করে ঘোষণা করা হল দুই বিদেশি ফুটবলারের নাম। উল্লেখ্য কার্ডিফ সিটি, উইগান অ্যাথলেটিক সহ সাম্প্রতিক অতীতে ইংল্যান্ডের লোয়ার ডিভিশন লিগগুলোতে খেলা লেফট-উইঙ্গার পিলকিংটন ২০১১-১৪ খেলেছেন প্রিমিয়র লিগ ক্লাব নরউইচ সিটিতে।

সেখানে ৭৫ ম্যাচে ১৪ গোল করা এই আইরিশ ফুটবলারকে নিয়ে ব্যাপক উৎসাহী লাল-হলুদ জনতা। পিলকিংটনের পাশাপাশি অফিসিয়ালি ঘোষণা হল ওয়েলস স্ট্রাইকার অ্যারন হলওয়ের নাম। উল্লেখ্য, গত মরশুমে ব্রিসবেন রোরে রবি ফাওলারের কোচিং’য়েই খেলেছেন হলওয়ে। তবে ২০ ম্যাচ খেলে ব্রিসবেন রোরের জার্সি গায়ে মাত্র একটি গোল করা ওয়েলসের এই ফুটবলারকে নিয়ে সমর্থকেরা বিশেষ উৎসাহী না হতে পারলেও বিশেষ একটি কারণে এই ফুটবলারের প্রোফাইলটি বেশ চমকপ্রদ।

অ্যারন আমাদি হলওয়ে আপফ্রন্টের পাশাপাশি ডিফেন্স সামলাতেও সিদ্ধহস্ত। সবমিলিয়ে অনেকে মনে করছেন বিশেষ কোনও কারণেই ফাওলারের গুডবুকে স্থান পেয়েছেন হলওয়ে। এই দুই ফুটবলারের আগে প্রথম বিদেশি হিসেবে এসসি ইস্টবেঙ্গলে স্কট নেভিল চূড়ান্ত হয়েছেন আগেই। সেক্ষেত্রে ব্রিসবেন রোর ঘোষণা করে দেওয়ায় এবং এ-লিগের ক্লাবটি থেকে লোনে আসার কারণে এই অজি স্ট্রাইকারের অফিসিয়াল ঘোষণাটি আগেই সেরে ফেলেছিল দল।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।