কলকাতা: শহরে করোনায় আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু৷ শুক্রবার সকালে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ওই চিকিৎসকের মৃত্যু হয়৷ এর আগেও করোনা আক্রান্ত হয়ে এ রাজ্যের দুই নামী চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছিল৷

জানা গিয়েছে, মৃত চিকিৎসকের নাম তরুনকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর৷ তিনি মেডিসিন বিশেষজ্ঞ হিসেবে একজন প্রতিষ্ঠিত চিকিৎসক ছিলেন৷

হাসপাতাল সূত্রে খবর, বেশ কিছুদিন আগে থেকেই তার বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয়৷ এমনকি জ্বর, শ্বাসকষ্টও ছিল৷ ২৩ জুলাই তার অবস্থার কিছুটা অবনতি হলে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ তার করোনা পরীক্ষা করা হলে,সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷

করোনা মোকাবিলায় প্রথম সারির লড়াইয়ে চিকিৎসক থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যকর্মীরা রয়েছেন৷ প্রায় দিনই তাদের মধ্যে কেউ না কেউ
করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন৷ তবুও তারা অদৃশ্য শত্রুর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন৷

এদিকে গুরুতর অসুস্থ চিকিৎসক ফুয়াদ হালিম৷ মঙ্গলবার মিন্টো পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে৷ বর্তমানে আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন জানিয়েছেন তার স্ত্রী সাইরা শাহ হালিম৷ করোনা পরীক্ষা করা হলেও প্রথমে নেগেটিভ আসে৷ কিন্তু পরে পজিটিভ আসে বলে খবর৷

ফুয়াদ হালিমের স্ত্রী তার টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছিলেন, ‘কোভিড মোকাবিলায় প্রথম সারির যোদ্ধা হওয়ার পাশাপাশি মহামারি চলাকালীন বহু অসহায় ,দরিদ্র, অসুস্থ মানুষের সেবা করেছেন আমার স্বামী ডাঃ ফুয়াদ হালিম৷ তিনি এখন বেলভিউ হাসপাতালের আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন৷ এই মানসিক পরিস্থিতিতে দয়া করে ওর জন্য প্রার্থনা করুন৷’

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ