পুদুচেরি- প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত সমস্ত পরীক্ষা বাতিল হল করোনা আতঙ্কের জেরে। কোভিড ১৯ যে ভাবে বিশ্বকে গ্রাস করছে তার জন্যই এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুদুচেরি সরকার। তবে পরীক্ষা বাতিল হয়েছে বলে পড়ুয়াদের নতুন ক্লাসে উত্তীর্ণ হওয়া আটকে থাকবে না। পরীক্ষা না দিয়েই নতুন ক্লাসে উত্তীর্ণ হতে পারবে তারা। জানিয়েছেন স্কুল এডুকেশনের ডিরেক্টর পিটি রুদ্র গৌড়।

পড়ুন আরও- লকডাউনের প্রথম দিনেই ভারত ৬০০ ছাড়াল আক্রান্তের সংখ্যা

এক জাতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে তিনি বলছেন, যেহেতু দেশ জুড়ে লকডাউন চলছে তাই বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। আর বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না বলেই পড়ুয়াদের পরীক্ষা ছাড়াই নতুন ক্লাসে উত্তীর্ণ করা হবে। তবে শুধু সরকারি নয়,বেসরকারি স্কুলগুলিতেও একই নিয়ম চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সারা দেশ জুড়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছেন।

গোটা দেশজুড়ে লকডাউনের সিদ্ধান্ত ঘোষনার মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে ফের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নিয়ে করোনা সংক্রান্ত জরুরি বৈঠকের ডাক দিলেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন সকাল,১০:৩০-য় এই বৈঠকের ডাক দেন মোদী। সেখানে দেশের বর্তমান করোনা সংক্রান্ত জটিল পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হতে পারে। এছাড়াও গোটা দেশ জুড়ে জারি লকডাউন সংক্রান্ত পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করা হবে এদিনের বৈঠকে।

যদিও করোনা আতঙ্কের জেরে সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ দিয়েছেন মোদী সহ সমস্ত রাষ্ট্রনেতারা। তবুও এই অবস্থায় বুধবারের মিটিং’এ সব ক্যাবিনেট মন্ত্রীরাই হাজির থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বাস ভবনে। করোনা মোকাবিলায় রাজধানী দিল্লি সহ বেশ কিছু রাজ্যে লকডাউনের পাশাপাশি ১৪৪ ধারাও জারি করা হয়েছে। আইন অমান্য করলেই পুলিশি ধরপাকড় সহ জেল এবং জরিমানা দুটোই হতে পারে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ