স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জন্মের শংসাপত্র, ভোটার আইডি কার্ড, আধার কার্ড, ভারতীয় পাসপোর্ট এবং প্যান কার্ড পেশা করে রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে – ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ খ্যাত অঞ্জু ঘোষ ভারতীয় নাগরিক। একই সঙ্গে, কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের উদ্দেশ্যে বিজেপির বার্তা, কলকাতা পুরসভাই অঞ্জুর জন্মের শংসাপত্র দিয়েছে। মেয়রের তা জানা উচিত।

প্রসঙ্গত, মেয়র বৃহস্পতিবারই পুরসভায় বলেছেন, বিজেপি যাকে খুশি তাঁকে দলে টানছে। মেয়রের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির সহ সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার জানান, বিজেপি সাধারণ মানুষ বা চলচিত্র তারকা, যাকে খুশি দলে টানতে পারে। তৃণমূল এত চিন্তিত কেন।

বুধবার অঞ্জু ঘোষ বিজেপিতে যোগদান করার পর তার নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। অনেকেই মন্তব্য করেন, অঞ্জু ঘোষের আসল নাম অঞ্জলি ঘোষ। জন্ম নাকি বাংলাদেশের ফরিদপুরে। কিন্তু অঞ্জু নিজে এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, ভারতেই তিনি জন্মেছেন। বড় হিয়ে উঠেছেন। তাঁর পিতা মাতা এখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।

 

বুধবার সন্ধ্যা থেকে চলা বিতর্ক শেষ করতে অঞ্জুর দেশীয় ডকুমেন্ট পেশ করেছে বিজেপি। জন্মের শংসাপত্র অনুযায়ী ১৯৬৬ সালে কলকাতার একটি নার্সিং হোমে জন্মেছেন অঞ্জু – সিনে জনতার চোখের মণি – বেদের মেয়ে জোৎস্না। জয়প্রকাশ মজুমদার এদিন বলেন, অঞ্জুর পিতৃপুরুষ ফরিদপুরে থাকতে পারেন। তার বাবা-মার সঙ্গে হয়তো ফরিদপুরের যোগাযোগ থাকতে পারে। তা স্বাভাবিক ব্যাপার।

(ভারতেরই নাগরিক অভিনেত্রী, প্রমাণ হিসাবে এই সমস্ত নথিই তুলে ধরা হয়েছে বিজেপির তরফে)