লন্ডন: শিল্পপতি অনিল আম্বানি লন্ডনের আদালতকে জানিয়েছেন তাঁকে মামলার খরচ চালাতে গিয়ে সমস্ত গয়না বেচে দিতে হচ্ছে। বর্তমানে তার সমস্ত খরচ বহন করছে তার স্ত্রী এবং পরিবার। চিনের ব্যাংক গুলি তার কাছ থেকে বকেয়া পাওনা আদায় করতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে‌। তারই প্রেক্ষিতে শুক্রবার আম্বানিকে লন্ডনের হাইকোর্টে হাজির হতে হয়েছিল।

ভিডিও লিংকের মাধ্যমে আম্বানি হাজির হয়েছিলেন ‌ এবং প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে তিনি তার সম্পত্তি, দায়, খরচ সম্পর্কে প্রশ্নের মুখোমুখি হন। অনিল আম্বানি সেখানে দাবি করেন, তার দামি গাড়ি সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমে ছড়িয়েছে তা রটনা । পাশাপাশি আদালতে উঠে আসে তিনি তার ছেলের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছেন বলে।

আম্বানি আদালতের নির্দেশ অনুসারে ব্যাংক গুলিকে অর্থ মেটাতে ব্যর্থ হওয়ায় তার কাছে তার সেইসব সম্পত্তির তালিকা চাওয়া হয় যে গুলির মূল্য ১,০০,০০০ কোটি ডলারের বেশি। পাশাপাশি গত ২৪মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট এবং ক্রেডিট কার্ড স্টেটমেন্ট চাওয়া হয়।

আম্বানির জানিয়েছিলেন তাঁর সম্পত্তি এখন -ঋণাত্মক হয়ে গিয়েছে। যদিও চিনের ব্যাংক গুলি সে কথা মানতে চায়নি। উদাহরণ হিসেবে তাঁর বিলাসবহুল জীবন যাত্রা কথা তোলা হয়। যদিও সেই প্রসঙ্গে তিনি তার দাদা মুকেশ আম্বানির কাছ থেকে সহায়তা পেয়েছেন বলে জানান।

ব্যাঙ্কগুলির প্রতিনিধি আদালতকে জানায় , আম্বানির দেওয়া তালিকা অসম্পূর্ণ। এদিকে আম্বানি জানান, যেহেতু তিনি এখন ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন না তাই তার ক্রেডিট কার্ডের সাম্প্রতিক স্টেটমেন্ট নেই। ব্যাংকের আইনজীবী জানায় আম্বানি তার স্ত্রী টিনার কাছ থেকে ইয়াচ উপহার পেয়েছেন। সেখানে আম্বানি জানান, তার সমুদ্র পীড়া রয়েছে আর তিনি এবং তার পরিবার বহুদিন ইয়াচ ব্যবহার করেন না।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।