প্রতীকী ছবি

নাসিক: চার মাস ধরে পরিশ্রম এবং টাকা পয়সা খরচ করে পেয়াঁজ চাষ করেছিলেন নাসিকের সঞ্জয় শেঠ৷ পেঁয়াজ হয়েছিল অনেকটাই৷ কিন্তু এ যেন তীরে এসে তরী ডোবা৷ ৭৫০ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করে পেলেন মাত্র ১০৬৪ টাকা৷ অসহায় চাষিদের দুর্দশার কথা এক অভিনব উপায়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পৌঁছে দিলেন সঞ্জয়৷ পেঁয়াজ বিক্রি করে পাওয়া সমস্ত টাকা দান করলেন প্রাধানমন্ত্রীর বিপর্যয় ত্রান তহবিলে৷

একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় শেঠ বলেন, ৭৫০ কেজি পেঁয়াজের দাম মাত্র ১০৬৪৷ তাই বাধ্য হয়েই আমার প্রতিবাদ স্বরূপ ওই টাকা পাঠিয়ে দিয়েছি প্রাধানমন্ত্রীর বিপর্যয় ত্রান তহবিলে৷ এটা পাঠানোর জন্য আমার খরচা হল আরও ৫৪ টাকা৷ ’’ সঙ্গেই সঞ্জয়বাবু যোগ করেন, ‘‘পাইকারি বাজারে প্রথমে পেঁয়াজের দাম উঠেছিল কেজি প্রতি ১টাকা৷ সেখান থেকে অনেক দরদামের পর প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ওঠে ১.০৪ টাকা৷’’

এই প্রথমবার নয় এর আগেও কিন্তু সঞ্জয় সংবাদ শিরোনামে এসেছেন৷ ভারতে ঘুরতে আসা মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ সারা ভারতে যে কজন কৃষক পেয়েছিলেন তার একজন হলেন সঞ্জয়৷ পেঁয়াজের দাম হাতে আসার পর আক্ষেপের সুরে মহারাষ্ট্রের এই কৃষক বলেন, ‘‘আমি একবার রেডিওতেও গিয়েছিলাম৷ সেখানে আমি দেশের চাষিদের অসহায় অবস্থার কথা জানানোর চেষ্টা করেছি কৃষিমন্ত্রীকে৷ কিন্তু আদপে কোন লাভ হয়নি? যদি এভাবে কেউ শোনেন আমাদের কথা৷’’