প্যারিস: গত ১৩ সেপ্টেম্বর লিগা ওয়ানের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে বচসা এবং হাতাহাতিতে জড়িয়ে লাল কার্ড দেখেছিলেন পিএসজি এবং মার্সেই’য়ের ৫ জন ফুটবলার। পরবর্তীতে ওই ৫ জন ফুটবলারের অপরাধের গুরুত্ব বিচার করে প্রত্যেককেই কম-বেশি ম্যাচের জন্য নির্বাসিত করেছিল লিগা ওয়ান কর্তৃপক্ষ। দু’ম্যাচের জন্য নির্বাসিত হয়েছিলেন পিএসজি’র ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার দি স্যান্তোস জুনিয়র।

ওই ম্যাচে বিপক্ষ ডিফেন্ডার আলভারো গঞ্জালেসের গায়ে থুথু ছেটানোর অভিযোগ উঠেছিল পিএসজি উইঙ্গার অ্যাঞ্জেল দি মারিয়ার বিরুদ্ধে। ঘটনায় শো-কজও করা হয়েছিল মারিয়াকে। পরে বিভিন্ন ফুটেজ খতিয়ে দেখে আর্জেন্তাইনের শাস্তির গুরুত্ব বিচার করে এবার সাজা শোনাল লিগা ওয়ানের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি। বিপক্ষ ফুটবলারকে থুতু ছেটানোর অভিযোগে দি মারিয়াকে চার ম্যাচের জন্য নির্বাসিত করল তারা। আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে আর্জেন্তাইন ফুটবলারের এই শাস্তির মেয়াদ শুরু হবে।

অর্থাৎ, আগামী রবিবার রেইমসের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে পারবেন দি মারিয়া। এরপর পিএসজি’র হয়ে তিনি লিগা ওয়ানে মাঠে নামবেন ফের ৮ নভেম্বর। অন্যদিকে আলভারো গঞ্জালেসের বিরুদ্ধে নেইমারের প্রতি বর্ণবৈষম্যমূলক মন্তব্যের যে অভিযোগ, সেটিও তদন্ত করে দেখছে লিগা ওয়ানের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি। আগামী ৩০ নভেম্বর এই ব্যাপারে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করবে তারা। নেইমারের সঙ্গে তাঁর সতীর্থ লিওনার্দো পারেদেসকেও দু’ম্যাচের জন্য নির্বাসনে পাঠানো হয়েছিল। মার্সেইয়ের জর্ডান আমাভিকে লাথি মেরে ছ’ম্যাচ নির্বাসিত হয়েছিলেন প্যারিসের ক্লাবের ফুল-ব্যাক লেভিন কুরজাওয়া।

উল্লেখ্য, মার্সেইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে দু’দলের ফুটবলারদের মধ্যে বচসা চলাকালীন গঞ্জালেসকে পিছন থেকে মাথায় চড় মেরেছিলেন নেইমার। ঘটনায় লাল কার্ড দেখেন ব্রাজিলিয়ান। তবে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় ম্যাচ অফিসিয়ালকে নেইমার জানান যে তিনি বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন। ম্যাচের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্রজিলিয়ান তারকা জানিয়েছিলেন আলভারো তাঁকে ‘বানর’ বলে সম্বোধন করেছেন। নেইমারের অভিযোগকে সমর্থন জানিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছিল তাঁর ক্লাব। পরে ব্রাজিল সরকারকেও এব্যাপারে পাশে পেয়েছিলেন নেইমার।

ব্রাজিলের মানবাধিকার মন্ত্রক থেকে এবিষয়ে একটি বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছিল, ‘ক্রীড়াঙ্গনে আরও একবার বর্ণবাদের ঘটনা সামনে এল। এক্ষেত্রে ব্রাজিলের মানবাধিকার মন্ত্রক নেইমার জুনিয়রের প্রতি সংহতিপরায়ণ। কারণ বর্ণবাদ একধরনের অপরাধ।’ এক বিবৃতিতে গঞ্জালেসকে পিছন থেকে আঘাত করা প্রসঙ্গে নেইমার জানিয়েছিলেন, ‘আমি কালো, একজন কালো মানুষের সন্তান, আমার পিতামহ-প্রপিতামহরাও কৃষ্ণাঙ্গ। এজন্য আমি গর্বিত। আমি একারণে নিজেকে অন্যদের চেয়ে আলাদাভাবে দেখিনা।’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।