ওয়াশিংটন: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসে এক কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার পর থেকে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে সেই দেশ। করোনা আবহাওয়ার মধ্যে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ। যেখানে অংশ নিয়েছেন একাধিক মানুষজন। আর তারই মধ্যে এবারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পিছিয়ে গেল অ্যান্ড্রয়েড ১১ উদ্বোধন। ওই ঘটনার পরে বেশ কয়েকদিন কেটে গেলেও ক্রমেই জটিল হয়ে উঠেছে সেখানকার পরিস্থিতি। আর সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত ৩ জুন অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেটা লঞ্চ করার কথা জানিয়েছিল টেক জায়েন্ট গুগল। তবে পরিস্থিতির কথা ভেবে তা আপাতত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন করে কবে লঞ্চ করা হবে তা এখনও জানানো হয়নি। গত ২৫ মে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যাক্তিকে খুনের অভিজোগে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আটলান্টা, মায়ামি, সহ বেশ কয়েকটি জায়গাতে শুরু হয় তীব্র প্রতিবাদ। জানা গিয়েছে প্রায় ১৩ টি শহরে জারি হয়েছে কার্ফু। পাশপাশি বেশ কয়েকটি জায়গাতে সংঘর্ষের ঘটনাও সামনে আসে। বেশ কয়েকটি জায়গাতে দোকানপত্র ভাংচুর করা হয়। পুলিশের সঙ্গেও তীব্র সমস্যার সৃষ্টি হয়।

বিশ্বজুড়ে এই মুহূর্তে একাধিক দেশ লড়াই করে চলেছে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও করোনা প্রভাব পরেছে তীব্র ভাবে। পাশপাশি শুরু হয়েছে অর্থনৈতিক মন্দাও। প্রচুর মানুষ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মারা গিয়েছে এই করোনার প্রকোপে। তারই মধ্যে এই ঘটনা ঘটায় স্বাভাবিক ভাবে ক্ষুব্ধ মানুষজন।

এর আগেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গদের উপরে অত্যাচার করার ঘটনা ঘটেছিল। তা নিয়ে সরব হয়েছিলেন অনেকেই। তারপর ফের এই ঘটনায় ধৈর্যের বাঁধ ভেঙেছে সকলের। দোষীর শাস্তির দাবিতে শুরু হয়েছে আন্দোলন।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প