অমরাবতী: পদে বসার পর থেকেই একের পর এক নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডি৷ এবার নতুন চমক তাঁর মন্ত্রিসভায়৷ জানা গিয়েছে, জগন মোহনের ক্যাবিনেটে থাকবেন পাঁচজন উপ-মুখ্যমন্ত্রী৷ এঁরা প্রত্যেকে এক একটি সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব করবেন৷

তফশিলি জাতির পক্ষ থেকে একজন, তফশিলি উপজাতির পক্ষ থেকে একজন, পিছিয়ে পড়া বা অনগ্রসর সম্প্রদায় ভুক্ত একজন, সংখ্যালঘু সম্প্রদায় থেকে একজন ও কাপু সম্প্রদায় থেকে একজনকে উপমুখ্যমন্ত্রী করা হবে বলে জানা গিয়েছে৷

শুক্রবারই জয়ী বিধায়ক ও মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন জগন রেড্ডি৷ এই প্রথম অন্ধ্রপ্রদেশ মন্ত্রিসভায় পাঁচজন উপ মুখ্যমন্ত্রী থাকতে চলেছেন৷ এতদিন অনগ্রসর ও কাপু সম্প্রদায় থেকে দুজনকে উপমুখ্যমন্ত্রী করা হত৷ চন্দ্রবাবু নাইডুর জমানাতে বরাবর দুজন উপমুখ্যমন্ত্রী পেয়ে এসেছে অন্ধ্রপ্রদেশ৷

আরও পড়ুন : আম-আদমির ‘ফিডব্যাক’ নিয়েই বাজেটের অংক কষছেন নির্মলা

বিধায়কদের নিয়ে বৈঠকে জগন রেড্ডি বলেন মানুষ কী চাইছেন, সেই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে৷ নতুন মন্ত্রীরা বিশেষ করে মানুষ দাবি দাওয়া শুনবেন এবং সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করবেন৷ এলাকায় ঘুরতে হবে নতুন মন্ত্রী ও বিধায়কদের৷ এলাকার খবর রাখতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন সদ্য নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী৷

অন্ধ্রপ্রদেশের ২৫ সদস্যের মন্ত্রিসভা শনিবার শপথ নিতে চলেছে৷ প্রত্যেক সম্প্রদায় থেকে একজন করে উপমুখ্যমন্ত্রী রাখার সিদ্ধান্তে অন্ধ্রের মানুষ খুশি বলে খবর৷

৩০ শে মে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন জগন মোহন রেড্ডি৷ আর পদে বসার পরেই রাজ্যবাসীর জন্য একগুচ্ছ ঘোষণা করেন তিনি৷ প্রবীণ নাগরিকদের জন্য মাসিক পেনশনের ব্যবস্থা করেন জগন রেড্ডি৷ তিনি বলেন প্রতি মাসে প্রবীণ নাগরিকরা ৩০০০ টাকা করে পেনশন পাবেন৷

আরও পড়ুন : ঝুঁকি নিয়ে লেভেল ক্রসিং পার হলেই গুনতে হবে মোটা অঙ্ক

তিনি জানান, মাসিক পেনশন প্রথমে শুরু হবে ২২৫০ টাকা থেকে৷ পরে তিন বছরে তা বেড়ে হবে সর্বাধিক ৩০০০ টাকা৷ দুর্নীতিমুক্ত সরকার গড়ার প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে একটি কলসেন্টার গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জগন৷ তিনি বলেন মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে একটি কলসেন্টার গড়ে তোলা হবে৷ যে কেউ এই কলসেন্টারে ফোন করে নিজেদের অভাব অভিযোগ জানাতে পারেন৷

এর পাশাপাশি, অক্টোবর মাসের মধ্যে বেকার যুবক যুবতীদের জন্য ১.৬ লক্ষ কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে৷ বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে মাশুল কমিয়ে আনারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ওয়াইএসআরসিপি সরকার৷ ছমাস থেকে এক বছরের মধ্যে সরকারের কাজকর্মে পরিবর্তন আনার ডাক দিয়েছেন জগন মোহন রেড্ডি৷

গ্রামীণ ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান বাড়ানোর কথা উল্লেখ করেন তিনি৷ জগন বলেন, অগাষ্ট মাসের মধ্যে গ্রাম সেক্টরে চার লক্ষ স্বেচ্ছাসেবক তৈরি করা হবে, যাদের মাসিক বেতন হবে ৫০০০ টাকা৷ প্রতি ৫০টি পরিবারের জন্য একটি করে স্বেচ্ছাসেবক থাকবে তাদের প্রতিনিধি হয়ে৷ তৈরি করা হবে গ্রাম প্রশাসন৷ যেখানে কোনও আবেদন করা হলে, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তা পূরণ করার চেষ্টা করা হবে৷