কলকাতা: বর্ধমানের অন্ডাল থেকে ভূটানে বিমান চলাচলের কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার বিশ্ববঙ্গ সম্মেলনে সেই ঘোষণাই বাস্তবায়িত হল। অন্ডাল থেকে বিমান চলাচলের ব্যাপারে পশ্চিমবঙ্গ এরোট্রোপোলিসের সঙ্গে মউ স্বাক্ষরিত করলেন ড্রুক এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা। ফলে শীঘ্রই অন্ডাল থেকে ভূটান বিমান চলাচল শুরু হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের অন্ডাল বিমানবন্দর থেকে ভূটান পর্যন্ত বিমান পরিষেবা দেওয়ার ব্যাপারে আগেই আগ্রহ প্রকাশ করেছিল ড্রুক এয়ারলাইন্স। শনিবার কলকাতায় বিশ্ববঙ্গ সম্মেলনের মঞ্চে বিষয়টি নিশ্চিত করেন তাঁরা। বেঙ্গল এরোট্রোপোলিস প্রজেক্ট লিমিটেড (বিএপিএল)-এর সঙ্গে মউ স্বাক্ষরও করেন। এই মউ অনুসারে, অন্ডাল থেকে ভূটানের পারো বিমানবন্দর পর্যন্ত বিমান চালাবে ড্রুক। এছাড়া অন্ডাল থেকে দক্ষিণ ভারতেও বিমান চলাচল করবে। এই পরিষেবা দিতে আগ্রহী হয়েছে স্পাইসজেট এবং গো-এয়ার বিমান সংস্থা। বিমান চালানোর পাশাপাশি অন্ডাল বিমানবন্দরকে টেকনিক্যাল স্টপেজ হিসাবেও ব্যবহার করতে চান ড্রুক কর্তারা। এ ব্যাপারেও এদিন অন্ডাল বিমানবন্দরের সঙ্গে মউ স্বাক্ষর করেছে ড্রুক এয়ারলাইন্স। এই চুক্তি অনুসারেম যে কোনও বিমান অন্ডাল বিমানবন্দরে সাময়িক পার্কিং করতে পারবে এবং জ্বালানি ভরতে পারবে। এর ফলে অন্ডাল বিমানবন্দর লাভবান হবে বলে আশাবাদী বিএপিএল। আপাতত অন্ডাল-ভূটান বিমান পরিষেবা শুরু হলেও আগামীদিনে এটি বিস্তার করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএপিএল আধিকারিক। তিনি বলেন, অন্ডাল থেকে সিঙ্গাপুর, দুবাইয়েও বিমান পরিষেবা শুরু করতে ড্রুক আগ্রহী। তবে এর জন্য কিছু প্রশাসনিক অনুমতির প্রয়োজন। সেই অনুমতি নেওয়ার কাজ সম্পন্ন হয়ে গেলেই এটি শুরু হবে। এদিনের ড্রুক-বিএপিএল মউ স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে চাঙ্গি বিমানবন্দরের কর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। সবমিলিয়ে বলা যায়, চলতি বছরেই অন্ডাল থেকে ভূটানে বিমান পরিষেবা শুরু হওয়ার পাশাপাশি বিশ্বের মানচিত্রে স্থান পেতে চলেছে অন্ডাল বিমানবন্দর।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব