মুম্বই: রবিবার মহিন্দ্র গ্রুপের চেয়ারম্যান আনন্দ মহিন্দ্র প্রস্তাব রেখেছেন আগামী কয়েক সপ্তাহ লকডাউন রাখার। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ক্ষেত্রে ভারত এখন তৃতীয় ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌ ধাপে থাকায় তিনি তার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

পাশাপাশি এই শিল্পপতি প্রস্তাব রেখেছেন তাদের গোষ্ঠীর বিভিন্ন রিসোর্ট মেডিকেল কেয়ার ফেসিলিটি হিসাবে ব্যবহার করার। তাছাড়া তাদের গোষ্ঠী কাজ করছে কিভাবে উৎপাদন ক্ষেত্রগুলিকে ভেন্টিলেটর করা যায়।

এই শিল্পপতি টুইট করে জানিয়েছেন, বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে ভারতবর্ষ ইতিমধ্যেই এই ভাইরাস ছড়ানোর ক্ষেত্রে তৃতীয় ধাপে রয়েছে। এরপর এই ধরনের কেস ‘এক্সপোনেনশিয়াল’ হারে বেড়ে গিয়ে কয়েক মিলিয়ন আক্রান্ত হলে তখন স্বাস্থ্য পরিকাঠামো বড় রকম চাপে পড়ে যাবে।

তিনি আরও জানান, এখন আগামী কয়েক সপ্তাহ লক ডাউন রাখা গেলে এই রেখচিত্র মোটের উপর এক রকম থাকলে স্বাস্থ্য পরিষেবার উপর ততটা চাপ পড়বে না। যদিও এখন প্রয়োজন অস্থায়ী হাসপাতাল গড়ার এবং অভাব রয়েছে ভেন্টিলেটরের।

তিনি তার শিল্পগোষ্ঠীর পরিকল্পনার কথা শেয়ার করে জানিয়েছেন, এই অচেনা আতঙ্ক মোকাবেলায় মহিন্দ্র গ্রুপ অবিলম্বে কাজ শুরু করবে যাতে তাদের উৎপাদন ক্ষেত্র গুলিতে ভেন্টিলেটর গড়া যায়। তাছাড়া মহিন্দ্র হলিডেজের অধীনে থাকা রিসোর্ট গুলিকে ‘টেম্পোরারি কেয়ার ফেসিলিটিস’ করতে দেওয়ার প্রস্তাব রেখেছেন তিনি।

এই গোষ্ঠীর প্রজেক্ট টিম সরকার এবং সেনাকে এইসব কাজে সহায়তা করার জন্য থাকছে। এছাড়া মহিন্দ্র ফাউন্ডেশন একটা তহবিল গঠন করবে ‌ তাদের গোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী এবং স্বনিযুক্ত উদ্যোগীদের সহায়তা করার জন্য।

আনন্দ মহিন্দ্র জানিয়েছেন, তার বেতনের ১০০ শতাংশই জমা করবেন ওই তহবিলে। তাছাড়া পরবর্তী কয়েক মাসে আরো কিছু জমা করা হবে যাতে অন্যান্য সহযোগীরাও এগিয়ে আসে সেখানে টাকা জমা দিতে বলে তিনি জানান। তিনি সমস্ত সহযোগীর কাছে আর্জি জানিয়েছেন, ওই তহবিলের অর্থ দিতে যাতে এই ব্যবসার বাস্তু তন্ত্রে জড়িয়ে থাকা অথচ এখন কঠিন সময়ের মধ্যেই থাকাদের সাহায্যের জন্য।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV