গয়া: শিল্পপতি আনন্দ মহিন্দ্র বিহারের এক কৃষককে ট্রাক্টর উপহার দিলেন। এই কৃষকটি গত ৩০ বছর ধরে ৩ কিলোমিটার দীর্ঘ খাল খনন করেছেন সেচের জল আনার জন্য।

ওই সেচের জল দিয়ে যাতে কৃষিকার্য করা যায়। এই লৌঙ্গি ভুঁইয়ার এই কাজের কথা জানাজানি হওয়ার পর রীতিমতো আলোড়ন পড়েছে। তাকে এখন অনেকেই ‘ক্যানাল ম্যান’ নামে ডাকছেন।

এমন ঘটনা জানার পর আনন্দ মহেন্দ্র প্রস্তাব দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তিটিকে ট্রাক্টর উপহার দেবেন এবং মহিন্দ্র ডিলারশিপ দেওয়া হবে। আনন্দ মহিন্দ্র নতুন একটি ট্রাকটারের পাশে দাঁড়ানো ওই ভূঁইয়া ছবি শেয়ার করেছেন তার দলের লোকেদের কাজের প্রশংসা করে।

তাছাড়া ডিলারশিপ দেওয়া হল তার এমন কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ। এর আগেই অবশ্য আনন্দ মহিন্দ্র এই কৃষকের কাজের প্রশংসা করে তাজমহল নির্মানের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন।

আনন্দ মহিন্দ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয়। টুইটারে প্রায়ই তিনি নানা রকম পোস্ট দেন এবং নানা রকম ভালো কাজের প্রশংসা করে তুলে ধরতে দেখা যায়। অস্বীকার করা যায় না ভূঁইয়া প্রশংসার যোগ্য।

দীর্ঘদিন ধরে এই বৃহৎ খাল খনন করে পার্শ্ববর্তী পার্বত্য অঞ্চল থেকে বৃষ্টির জল এনেছেন তার ক্ষেতে গয়ার লাঠুয়া অঞ্চলের কোথিলওলায়। তিনি জানিয়েছিলেন, ৩০ বছর ধরে এই খাল খনন করেছেন গ্রামের পুকুরের জল আনার জন্য।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।