প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: ফের বাংলায় ধর্ষণের শিকার এক আদিবাসী কিশোরী৷ এবার ধর্ষণের অভিযোগ উঠল মালদহের গাজোল থানা এলাকার কান্দ্রর গ্রামে৷ বাড়ির সামনে থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ৷

গ্রামেরই দুই যুবক তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ৷ অভিযোগ দায়ের হয়েছে গাজোল থানায়৷ পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে দিলীপ সরেন নামে এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে৷

আরও পড়ুন: ‘বাংলায় অমিত শাহের এই রথ যাত্রা শশ্মান যাত্রায় পরিণত হবে’

ওই কিশোরীর মায়ের দাবি, তিন মেয়েকে নিয়ে তিনি স্বামীর ঘর ছেড়েছেন৷ গাজোলের একটি গ্রামে বাবার বাড়িতে থাকেন তাঁরা৷ ঘটনার রাতে তাঁর মেয়ে খাওয়ার পর বাড়ির বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলেন৷ সেই সময় স্থানীয় দুই যুবক দিলীপ সরেন ও অর্জুন হাঁসদা তাঁর মেয়েকে তুলে নিয়ে যায়৷

মেয়েকে রাতে দেখতে না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার খোঁজ শুরু করেন। গোটা বিষয়টি জানানো হয় গ্রামের মোড়লকে। খোঁজখবর নিয়ে গ্রামের মোড়ল জানতে পারেন স্থানীয় দুই যুবক তাঁর মেয়েকে অপহরণ করেছে৷

আরও পড়ুন: Breaking News- মাঝ আকাশে ভেঙে পড়ল বিমান

পরিবারের দাবি, এক যুবককে পাকড়াও করে চাপ দিতেই সে একটি মোবাইলে ফোন করে৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই একটি গাড়িতে করে মেয়েকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ গোপনাঙ্গ রক্তাক্ত অবস্থায় ছিল৷

কিশোরীকে গাজোল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন৷ হাসপাতাল সূত্রে খবর, মেয়েটির যৌনাঙ্গ-সহ শরীরের একাধিক জায়গায় গুরুতর আঘাত রয়েছে।

আরও পড়ুন: ভরা বাসে মহিলা সাংবাদিকের সামনেই হস্তমৈথুনের অভিযোগ