অমৃতসর: দসেরাতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা অমৃতসরে৷ পাঠানকোট থেকে অমৃতসরগামী একটি ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ হারাল বহু মানুষ৷ অমৃতসরের চৌড়া বাজারেক কাছে এই ভয়াবহ ঘটনা ঘটে যায়৷ শয়ে শয়ে মানুষ যখন রেল লাইনে দাঁড়িয়ে রাবণের পুতুল জ্বালানো উপভোগ করছিল ঠিক সেই সময়েই তাদের ওপর দিয়ে ছুটে যায় একটি যাত্রীবাহী ট্রেন৷

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে নিহতের সংখ্যায় হেরফের থাকলেও, জানা যাচ্ছে কমপক্ষে ৫০ জন প্রাণ হারিয়েছে এবং এই সংখ্যাটা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ এক প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য থেকে অনুমান করা যেতে পারে এই ঘটনার ভয়াবহতা৷ প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য অনুযায়ী, মৃতদেহগুলির অবস্থাও খুবই খারাপ ছিল৷ কারও হাত নেই তো, কারও মাথা৷ বাস্তব ছবিটা দেখার মতো সাহসও কারও হচ্ছিল না৷

আরও একজনের মতে, এমন পরিস্থিতির কথা বা ছবি সিনেমাতেই দেখা যায়৷ ১৯৪৭-এর পর অমৃতসরে মৃতদেহের ছড়াছড়ি এই মর্মান্তিক পরিস্থিতি দসেরাতে দেখা গেল৷ যে বা যারা এই ঘটনার জন্য দায়ী তাদের কড়া শাস্তি হোক, ইতিমধ্যেই এই দাবি জোরালো হচ্ছে৷

প্রশাসনের ভূমিকাতেও উঠছে আঙুল৷ তাঁদের অভিযোগ, ট্রেন আসার সময় বাঁশি বাঁ অন্য কোনও অ্যালার্ম বাজিয়ে সবাইকে সতর্ক করা উচিত ছিল। অথবা ওই বিশেষ জায়গায় ট্রেন ধীরে চালানোর বা থামানোর ব্যবস্থা রাখা উচিত ছিল। তাহলে এই বিপত্তি ঘটত না।

উল্লেখ্য, অমৃতসর এবং মানয়ালের মাঝে ২৭ নম্বর গেটের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়েছে রেলের তরফে। দশেরা অনুষ্ঠান চলাকালীন ভীড়ে ঠাসা মানুষদের উপরে দিয়ে একটি ডিএমইউ ট্রেন চলে যায়। ট্রেনের নম্বর হচ্ছে ৭৪৯৪৩। এমনই জানিয়েছেন নর্দান রেলের সিপিআরও।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। আপাতত আহতদের চিকিৎসা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। সেই চেষ্টা চলছে। একই সঙ্গে আরও জানানো হয়েছে যে এই ঘটনায় জড়িত কোনও ব্যক্তিকে রেহাই দেওয়া হবে না। সকলের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।