তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: ‘‘দাঙ্গাবাজ ও চোর-জোচ্চোর এই দুই পক্ষকেই নিজের প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখছি। এবার ওরা ঠিক করুক কে দ্বিতীয় হবে আর কে তৃতীয় হবে।’’ এই ভাষাতেই বিজেপি-তৃণমূলকে আক্রমণ করলেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী অমিয় পাত্র৷

শুক্রবার বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী অমিয় পাত্র তালডাংরার পাঁচমুড়া এলাকায় ভোট প্রচারে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন৷ এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যতো বেশি বাঁকুড়ায় এসে সভা করবেন, ততো বেশি সিপিএমের ভোট বাড়বে।

রাজ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ভোটে হিংসা, মারামারি ও ভোট লুঠ, ছাপ্পার অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, আমরা পুলিশ বা কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর ভরসা করি না। মানুষ যেদিন নিজের ভোট নিজে দেওয়ার জন্য লড়াই করবে, আমার নিজের অধিকার আমি নিজে রক্ষা করব৷ এই মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে যাবে সেদিনই ভারতবর্ষের গণতন্ত্র সার্থক হবে বলে তিনি মনে করেন।

একই সঙ্গে আত্মবিশ্বাসী সিপিএম প্রার্থী বলেন, এবার তৃণমূলের যা অবস্থা হয়েছে ওরা আর ভোট লুঠ করতে পারবে না৷ এদিন তিনি পান ও সবজি বাজারে পথ সভা শেষ করে পাঁচমুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের লালবাঁধ, পাটাতেতুঁল, ভেতুয়াডাঙ্গা, গরাই জামবেদিয়া, তেলি জামবেদিয়া, সহ বেশ কয়েকটি গ্রামে নির্বাচনী প্রচার চালান।

উল্লেখ্য, পূর্ব তালডাংরার এই এলাকা থেকেই অমিয় পাত্রের রাজনৈতিক জীবন শুরু। এখান থেকেই স্থানীয় একটি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, এলাকার বিধায়ক, দলের জেলা সম্পাদক, ক্ষেত মজুর সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক থেকে সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বর্তমানে লোকসভার প্রার্থী। তাদের প্রিয় অমিয় পাত্রের রাজনৈতিক উত্থানের সাক্ষী থেকেছেন এখানকার মানুষ।

স্বাভাবিকভাবেই তাঁকে দেখে এলাকার সমস্ত স্তরের নারী, পুরুষ নির্বিশেষে সকলে ঘর ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। প্রচারে বেরিয়ে মানুষের উষ্ণ অভ্যর্থনায় ভেসে যান সিপিএম প্রার্থী অমিয় পাত্র। এই পরিস্থিতিতে তাঁকে ঘিরে মানুষের উৎসাহ আর উদ্দীপনা দেখে কিছুটা আবেগ তাড়িত হয়ে পড়েন এই বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা।