মুম্বই: ঋষি কাপুরের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ অমিতাভ বচ্চন। কিছুতেই সেই শোক কাটিয়ে উঠতে পারছেন না বিগবি। আরও কষ্ট হচ্ছে, কারণ শেষ দেখাও তিনি দেখতে পারেননি। হাসপাতালেও অসুস্থ বন্ধুকে দেখতে যেতে পারেননি। তাই ভেঙে পড়েছেন অভিনেতা। ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও করে কেঁদে ফেললেন তিনি।

বয়সে বেশ অনেকটাই ছোট ছিলেন ঋষি। তাঁর সম্পর্কে ভিডিওয় অমিতাভ বলছেন, রাজ কাপুরের বাড়িতেই ঋষিকে প্রথম দেখেছিলেম তিনি। এর পরে আরকে স্টুডিওতেও বহুবার ঋষিকে দেখেছেন তিনি। তবে ঋষি সবে অভিনয় শুরু করেছেন। আর সবসময়েই তাঁকে খুব প্রাণবন্ত দেখেছেন। অসুখের জন্য মন খারাপ করে বসে থাকতে দেখেননি। হাসপাতালে গিয়েও বলতেন ফিরে আসার কথা। কিন্তু শেষ বার তাঁকে হাসপাতালেও দেখতে পারেননি অমিতাভ। এমনকী শেষ দেখাটাও আর হয়নি, কারণ চিরঘুমে ঋষিকে দেখা তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়। এই ভিডিওতেই চোখে জল এসে যায় বিগবির।

বৃহস্পতিবার যেদিন ঋষি কাপুর চলে গেলেন সেদিনও একটি লম্বা পোস্ট করেছিলেন অমিতাভ। তিনিই প্রথম ঋষির মৃত্যুর খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছিলেন। তিনি লিখছিলেন, আমি আর পারছি না। ঋষি নেই…চলে গেল ঋষি কাপুর…আমি শেষ হয়ে যাচ্ছি।

এক সঙ্গে বহু হিট ছবিতে অভিনয় করেছনে ঋষি ও বিগবি। খুব স্বাভাবিক ভাবেই তাই তাদের মধ্যেও আলাদা বন্ধুত্ব ছিল৷ বন্ধু ও সহ অভিনেতার মৃত্যুর খবরে তাই খুবই ভেঙে পড়েছেন অমিতাভ বচ্চন। ইরফান খানের মৃ্ত্যুর শোক কাটিয়ে ওঠার আগেই আরও এক কাছের মানুষের মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না তিনি। আর এমনই অবস্থা তিনি বন্ধুকে শেষ দেখাও দেখতে পারেননি। তাই শোকস্তব্ধ হয়ে রয়েছেন অভিনেতা।

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হন ঋষি কাপুর। তারপরে নিউ ইয়র্কে চিকিৎসার জন্য চলে যান তিনি। সঙ্গে গিয়েছিলেন তার স্ত্রী নিতু কাপুর। ঠিক এক বছর পর দেশে ফিরেছিলেন তিনি। কিন্তু বুধবার সকালে হঠাৎই শরীর খারাপ করে ঋষির। তড়িঘড়ি তাকে ভর্তি করা হয় মুম্বাইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে। আর পরের দিনই অর্থাৎ বৃহস্পতিবার দুঃসংবাদ আসে। প্রয়াত হন অভিনেতা। বলিউডে তৎক্ষণাৎ নেমে আসে শোকের ছায়া। লকডাউন মেনেই শেষকৃত্য পালন হয় তার।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV