লখনউ: একসময়ের গান্ধী পরিবারের বন্ধু এখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছের মানুষ৷ কথা হচ্ছে বলিউড শাহেনশা অমিতাভ বচ্চনের৷ ভোট প্রচারে বিগ বি’র নাম টেনে এনে মোদীর সমালোচনা করলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী৷ তাঁর মতে, দু’জনের অভিনয়ে কোনও ফারাক নেই৷ দু’জনেই বিশ্বমানের সেরা অভিনেতা৷

লোকসভা ভোট এখন অন্তিম পর্যায়ে৷ প্রচারের শেষ দিন উত্তরপ্রদেশের মির্জাপুরে ঝড় তোলেন রাজীব তনয়া৷ সেখানে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘‘আপনারা দুনিয়ার সেরা অভিনেতাকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দিয়েছেন৷ এর থেকে তো অমিতাভ বচ্চনকে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বানাতে পারতেন৷ মোদীও কিছু কাজ করেনি৷ অমিতাভও কোনও কাজ করতে পারতেন না৷’’

আরও পড়ুন: মায়াবতী বিবাহিতা নন, পরিবারের অর্থ বোঝেন না: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

অমিতাভ বচ্চন একসময় রাজীব গান্ধীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন৷ যে মির্জাপুরে প্রিয়াঙ্কা আজ প্রচারে যান সেখান থেকে মাত্র ৮৫ কিমি দুরে এলাহাবাদ৷ রাজীবের অনুরোধে এলাহাবাদ কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে প্রথম ভোটে দাঁড়ান বিগ বি৷ জিতে সাংসদ হন৷ কিন্তু রাজনীতিতে আসার সিদ্ধান্তই কাল হয় তাদের বন্ধুত্বের৷

রাজীব-অমিতাভ বন্ধুত্বে তিক্ততা আসে বফোর্স চুক্তিকে ঘিরে৷ বফোর্স দুর্নীতিতে নাম জড়ায় অমিতাভের৷ বিরক্ত হয়ে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেন শাহেনশা৷ যদিও পরবর্তীকালে তিনি ক্লিনচিট পেয়ে যান৷ কিন্তু ততদিনে দুরত্ব অনেকটাই তৈরি হয়ে যায়৷ ১৯৯১ সালে রাজীব গান্ধী মারা যাওয়ার পর সেই বন্ধুত্বের কফিনে শেষ পেরেক পড়ে যায়৷

আরও পড়ুন: ক্ষমতায় ফিরলে আরও দেশদ্রোহী আইন কঠোর কড়া হবে: হুঁশিয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

ওই ঘটনার পর রাজনীতিতে না আসার সিদ্ধান্ত নেন অমিতাভ৷ স্বামীর পর স্ত্রী জয়া নামেন রাজনীতির ময়দানে৷ যোগ দেন সমাজবাদী পার্টিতে৷ অপরদিকে ধীরে ধীরে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীর সখ্যতাও বাড়তে থাকে৷ গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় মোদী অমিতাভকে রাজ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসডর করেন৷