নয়াদিল্লি: দিল্লিতে মন্দিরে হামলার ঘটনায় পুলিশ কমিশনারকে ডেকে পাঠালেন ক্ষুব্ধ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রবিবার হজ কাজির ঘটনায় কী পরিস্থিতি, সে বভাপারে খোঁজ নেন তিনি।

বুধবার অমিত শাহর সঙ্গে দেকা করেন দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়েক। তিনি বলেন, গোটা ঘটনাটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়েছি। হজ কাজি এলাকার পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে। এখনও পর্যন্ত ওই ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, রবিবার গাড়ি পার্ক করা নিয়ে বচসার জোরে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। তারই জেরে এলাকার একটি প্রাচীন মন্দিরে ইটবৃষ্টি করা হয়। পুলিস কমিশনার বলেন, এলাকায় শান্তি বজায় রাখার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর ট্যুইট করে বলেছেন, দোষীদের কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। তিনি লিখেছেন, ‘যারা আমাদের বিশ্বাসের স্থানে আঘাত করে ভাবে যে তারা আমাদের মধ্যে বিভাজন তৈরি করবে, তারা ভুল ভাবছে। আমাদের ধর্মীব সংস্কৃতিতে আমরা কোনও প্রভাব ফেলতে দেব না। দিল্লির মানুষকে শান্তি বজায় রাখার বার্তাও বলেন তিনি।

এদিকে, এই ঘটনা নিয়ে সরকারকে নিশানা করেছে কংগ্রেস। তাদের আক্রমণের লক্ষ্য খোদ অমিত শাহ। কংগ্রেস মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি টুইট করেন, ঘটনা ২ দিন পরও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি সরকার। আমরা জানি, শাসক দল দেশের সংখ্যালঘুদের কোনও স্বার্থই দেখে না। এখন দেখা যাচ্ছে সংখ্যাগুরুদের ভাবাবেগকেও গুরুত্ব দিতে রাজী নয় সরকার।

মঙ্গলবার এলাকায় যান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষবর্ধন। তিনি বলেন, হাউজ কাজির ঘটনার প্রভাব যাতে অন্য কোথাও ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য সব ব্যবস্থা করা হয়েছে। যারা এই ঘটনায় জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।