নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিদ্যাসাগর কলেজে যা ঘটেছে, সেই ঘটনার পর্দাফাঁস করতে চাইলেন বিজেপির সর্বভারতীয় অমিত শাহ৷ বুধবার সকালে দিল্লিতে কেন্দ্রীয় বিজেপির কার্যালয়ে বসে অমিত পরিষ্কার অভিযোগ করেছেন, বিদ্যাসাগর কলেজে লোহার মূল ফটক বন্ধ ছিল৷ কলেজের ভিতরে ছিল তৃণমূলের সমর্থকরা৷ বাইরে ছিল বিজেপি৷ মাঝে পুলিশ৷ বিজেপি সমর্থকরা কীভাবে কলেজের ভিতরে ঢুকে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তিতে ভাঙচূর চালালো? সন্ধ্যা হয়ে গিয়েছিল৷ কলেজ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ ওই ঘরের তালার চাবি কার কাছে ছিল? বাইরে থেকে বিজেপির লোক ভিতরে গিয়ে মূর্তি ভেঙেছে – এটা কতটা বিশ্বাসযোগ্য? কলেজ চালায় তৃণমূল৷ বিজেপির সফল মহামিছিল তাদের সহ্য হয়নি৷ তৃণমূলের গুন্ডারা মূর্তি ভেঙে বিজেপির উপর দোষ চাপাচ্ছে৷

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির বক্তব্য, নিউজ চ্যানেলের কাছে ঘটনার ফুটেজ রয়েছে৷ ওই ফুটেজ দেখা হোক৷ কে মূর্তি ভাঙলো সিসিটিভির ফুটেজ দেখা হোক৷ সেই প্রশ্নের উত্তর কই? বিদ্যাসাগর কলেজের মূল ফটক পেরিয়ে বিধানসরণী ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে হয়৷ কাঠের দরজা পেরিয়ে একটি যে ঘরে প্রবেশ করতে হয়, সেই ঘরেই কাঁচের বাক্সে রাখা ছিল বিদ্যাসাগরের মেমেন্টো৷ কে বা কারা ওই কাঁচের বাক্স থেকে মূর্তি ভাঙল – প্রশ্ন উঠেছে৷ অমিত শাহ এদিন সাফ জানিয়েছে, এই ঘটনা ঘটিয়েছে তৃমমূল কংগ্রেস৷

মঙ্গলবার শহিদ মিনার ময়দান থেকে ধর্মতলা হয়ে লেনিন সরণী, ওয়েলিংটন হয়ে মিছিল বেঁকেছিল কলেজ স্ট্রিটের দিকে৷ কিন্তু সেখানেই গন্ডোগোলের সূত্রপাত হয়৷ বিদ্যাসাগক কলেজের মূল ফটকের ওপারে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা মিছিলের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে৷ অমিত শাহ গো-ব্যাক ধ্বনি ওঠে৷ তা গন্ডোগোলে ঘৃতাহুতি দেয়৷ লোতসভা নির্বাচনে বাংলায় সাত দফা নির্বাচন হবে৷ বাকি শুধু শেষ দফা৷ কলকাতা এবম শহরতলীতে এই নির্বাচন তৃণমূল কংগ্রেসের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ বিজেপিও এই নির্বাচনে তৃণমূলকে ধাক্কা দিতে প্রস্তুত৷

গতকাল বিদ্যাসাগর কলেজে যে তাণ্ডব হয় এই রোড শো-কে ঘিরে, তার জন্য আঙুল তোলা হয় বিজেপির দিকে৷ বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় চরম পরিস্থিতিতে রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ মিছিলে নামে তৃণমূল থেকে বামফ্রন্ট৷ আর এরই মধ্যে দায়ের করা হল জোড়া এফআইআর৷ জানা গিয়েছে, আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিদ্যাসাগর কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। পাশাপাশি, জোড়াসাঁকো থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরাও এফআইআর দায়ের করেছে৷