ভোপাল: ৬ই অক্টোবর মুখোমুখি হতে চলেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷ একই দিনে একই রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারে যাচ্ছেন তাঁরা৷ তাই মুখোমুখি না হলেও একই সময়ে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী দলের শীর্ষ নেতার সফরে সরগরম রাজনৈতিক মহল৷

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে জোর টক্কর দিতে চলেছে কংগ্রেস ও বিজেপি৷ তবে মায়াবতী হাত শিবির ছেড়ে দেওয়ায় কিছুটা হলেও ব্যকফুটে কংগ্রেস৷ যদিও সেই ফ্যাক্টরকে বড় করে দেখতে নারাজ মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতারা৷ একদিনের জন্য রাজ্যে সফরে যাচ্ছে কংগ্রেস সভাপতি৷ ফলে জোরদার করা হচ্ছে রাহুল গান্ধীর প্রচার পর্ব৷

অন্যদিকে, বেশ কয়েকদিন নির্বাচনী প্রচারে রাজ্যে থাকবেন বিজেপি সভাপতি৷ তাঁর কর্মসূচিও নির্ধারিত৷ বিভিন্ন প্রান্তে জনসভা করার কথা রয়েছে অমিত শাহের৷ কথা বলবেন রাজ্যের বিজেপি কর্মীদের সঙ্গেও৷

কংগ্রেস সভাপতি আগামী ৬তারিখ প্রথমে গোয়ালিয়র হয়ে মোরিনায় যাবেন৷ একতা পরিষদ কনক্লেভে যোগ দেবেন তিনি৷ সেখান থেকে রাহুল যাবেন জব্বলপুর৷ ওই দিনই গোয়ারি ঘাটে নর্মদা পুজোয় অংশ নেবেন তিনি৷ তারপর একটি রোড শো করার কথা রয়েছে তাঁর৷ জব্বলপুরের রাড্ডি চকে এক জনসভায় যোগ দেবেন রাহুল গান্ধী৷ বিকেলে ফিরে যাবেন দিল্লিতে৷

অন্যদিকে ৬তারিখ মধ্যপ্রদেশ পৌঁছচ্ছেন অমিত শাহও৷ ইন্দোর ও উজ্জয়নে প্রথমে দলের নেতা কর্মীদের সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে তাঁর৷ এরপর ৯ই অক্টোবর গোয়ালিয়রে পৌঁছবেন তিনি৷ সেখানের দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বেশ কয়েকটি বৈঠক রয়েছে তাঁর৷ ১৪ই অক্টোবর সাগর, ভোপাল, ও হোসাঙ্গাবাদের বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করবেন৷ সেদিন বৈঠক করবেন রেওয়া, শাদল ও জব্বলপুরের কর্মীদের সাথে৷

এরআগে, ২৬শে সেপ্টেম্বর দলীয় কর্মীদের উদ্বুদ্ধ করতে একসঙ্গে মধ্যপ্রদেশ সফর করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। ভোপালে তাঁরা বহু সংখ্যক দলীয় কর্মীর সামনে ভাষণ দেন তাঁরা। বিজেপির তরফে এই সভাকে রাজনৈতিক কর্মীদের বিশ্বের বৃহত্তম সভা বলেও বর্ণনা করা হয়েছে।

অন্যদিকে, ১৭ সেপ্টেম্বর ভোপাল গিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। সেখানে রোড শো করার পর কংগ্রেস কর্মীদের নিয়ে সভাও করেন তিনি। তবে ফের মধ্যপ্রদেশে যান রাহুল গান্ধী। ২৭ ও ২৮ সেপ্টেম্বরের সফরে চিত্রকূট থেকে সাতনা হয়ে রেওয়া যাওয়ার কর্মসূচি ছিল তাঁর৷