নয়াদিল্লি: নাগরিকত্ব পেতে লাগবে না রেশন কার্ড। উদ্বাস্তু অমুসলিমদের নাগরিকত্ব পাওয়ার ক্ষেত্রে লাগবে না এই কার্ড। আজ সোমবার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশ হয় লোকসভায়। আর সেখানেই জবাবি ভাষণে এমনটাই জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, এই আইনের আধীনে কেউ নাগরিকত্ব পেলে তার বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত যাবতীয় মামলা খারিজ হয়ে যাবে।

রেশন কার্ডের বিষয়টি উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অমুসলিমদের ভারতীয় নাগরিকত্ব পেতে রেশন কার্ডের কোনও দরকার নেই। যেদিন থেকে ভারতে এসেছেন সেদিন থেকে ভারতের নাগরিকত্ব পাবেন।’ একই সঙ্গে জবাবি ভাষনে দেশে বসবাসকারী উদ্বাস্তুদেরও আশঙ্কা কাটান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘নাগরিকত্বের আবেদন করার পর যদি কারও বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশের অভিযোগ দায়ের হয় তাহলে নাগরিকত্ব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর ওপর থেকে যাবতীয় অভিযোগ নিজে থেকেই প্রত্যাহার হয়ে যাবে।

নাগরিকত্ব পাওয়ার পর কারও বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত কোনও মামলা চালানো যাবে না।’ নাম না করে কংগ্রেস, তৃণমূল-সহ বিরোধী দলগুলিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘নাগরিকত্বের আবেদন জানানো হলেই তার বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশের মামলা দায়ের হবে বলে অনেকে রটাচ্ছে। এসব কথায় কান দেবেন না।’

একই সঙ্গে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের পক্ষে থাকতে বাংলার সাংসদদের আবেদন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। সংবিধান মেনেই নাগরকিত্ব সংশোধনী বিল পেশ বলে দাবি শাহের। আজ সোমবার লোকসভায় বিল পেশ হতেই তুমুল হট্টগোল বাধে। বিলের বিরোধিতায় সরব হন কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী থেকে শুরু করে বিরোধী দলের সাংসদরা। বিলের বিষয় নিয়ে তুমুল আপত্তি তোলেন সৌগত রায়। তৃণমূল নীতিগতভাবে বিলের বিরোধিতা করছে বলে লোকসভায় সওয়াল সৌগত রায়ের। ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বর্ষীয়ান এই সাংসদ।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে জাতীয় স্বার্থ ক্ষুন্ন হবে বলে দাবি অধীর চৌধুরীর। বিলের প্রতিবাদে সরব হন আরএসপি-সহ একাধিক বিরোধী দলের সাংসদরা। বিরোধীদের দাবি উড়িয়ে একের পর এক সওয়াল অমিত শাহের। বিরোধীদের আশঙ্কা অমূলক বলে দাবি করে শাহ জানান, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে শরনার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার সুযোগ আছে। ধর্মনিরপেক্ষতার সব শর্ত মেনেই বিল পেশ বলে দাবি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। বাংলার সাংসদদের বিলের পক্ষে সমর্থনের আবেদনের পাশাপাশি সীমান্ত সুরক্ষায় রাজ্যগুলিকে এগিয়ে আসার বার্তা অমিত শাহের। অনুপ্রবেশ রুখতে সীমান্ত এলাকায় রাজ্যগুলিকে বিশেষভাবে নজর দেওয়ার পরামর্শ অমিত শাহের।