শ্রীনগর: দুদিনের সফরে জম্মু কাশ্মীরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ নিরাপত্তা ব্যবস্থার খুঁটিনাটি খতিয়ে দেখছেন তিনি৷ এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার প্রথম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তিনি দেখা করলেন জম্মু কাশ্মীর পুলিশের শহিদ এসএইচও আরশাদ খানের পরিবারের সঙ্গে৷

১২ই জুন কাশ্মীরের অনন্তনাগে জঙ্গিদের গুলি লাগে আরশাদ খানের বুকে৷ আশংকাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি করা হয় তাঁকে৷ হাসপাতালেই মারা যান আরশাদ৷ চল্লিশ বছর বয়েসী আরশাদকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল দিল্লির এইমসে৷ তবে শেষ রক্ষা হয়নি৷ অনন্তনাগের সদ্দর পুলিশ স্টেশনের এসএইচওর প্রাণহীন দেহ ফিরেছিল তাঁর বাড়িতে৷

সেই আরশাদ খানের পরিবারের সঙ্গে এদিন দেখা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷ আরশাদ খানের স্ত্রী, মা ও দুই সন্তান রয়েছেন বাড়িতে৷ তাদের সঙ্গে দেখা করে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলে সূত্রের খবর৷ ওই একই হামলায় শহিদ হন আরও পাঁচ জন সিআরপিএফ জওয়ান৷

পুলিশ সূত্রে খবর, ১২ই জুন সিআরপিএফের পেট্রোলিং ভ্যানে হামলা চালায় জইশ জঙ্গিরা৷ খবর পেয়ে নিকটবর্তী সদ্দর থানার পুলিশ বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন এসএইচও আরশাদ খান৷ বুলেটপ্রুফ গাড়ি থেকে নামতেই একটি গুলি তাঁর বুকে লাগে৷ ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন আরশাদ৷ তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়৷

বৃহস্পতিবার জম্মু কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্য পাল মালিকের সঙ্গে বৈঠকও করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ জানতে চান কাশ্মীরের পরিস্থিতি৷ এর আগে বুধবার বিমানবন্দরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বাগত জানান রাজ্যপাল৷ যদিও প্রোটোকল অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীকেই একমাত্র স্বাগত জানাতে পারেন রাজ্যপাল৷ তাঁর সঙ্গে এদিন ছিলেন প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্তারা৷ কাশ্মীরে পৌঁছেই উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি৷

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন সেখানে৷ স্বরাষ্ট্রসচিব রাজীব গৌবা, নর্দার্ন আর্মি কমাণ্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল রণবীর সিং, ডিজিপি দিলবাগ সিং, রাজ্যের মুখ্য সচিব বি ভি আর সুব্রক্ষ্মণ্যমও উপস্থিত ছিলেন৷

এরআগেই শাহ জানিয়েছিলেন কাশ্মীরে কোনও ধরণের সন্ত্রাস বা সন্ত্রাসে উস্কানি বরদাস্ত করবে না কেন্দ্র৷ সেই কড়া বার্তা নিয়ে নিরাপত্তা বৈঠকও করেছিলেন তিনি৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর এই প্রথম কাশ্মীর সফরে তিনি৷ কাশ্মীরে সন্ত্রাস দমনে ভারত সরকার জিরো টলারেন্স নীতির কথা ঘোষণা করেছিল৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পরিষ্কার বার্তা দিয়েছিলেন যে সেই নীতি কড়া হাতে প্রয়োগ করা হবে উপত্যকা জুড়ে৷ নিরাপত্তা বাহিনী ও ভারতীয় সেনার কাছে সেই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল৷ এতে হাতে নাতে ফলও পায় ভারতীয় সেনা৷

রিপোর্ট বলছে ২০১৯ সালে ৩৭টি সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়েছে কাশ্মীরে৷ ১২ জন মারা গিয়েছেন, ৪০ জন আহত হয়েছেন৷ শতাধিক জঙ্গিকে আটক করা সম্ভব হয়েছে৷ জম্মু কাশ্মীর ছাড়া পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সীমানা ভিত্তিক নিরাপত্তা নিয়েও আলোচনা করেছিলেন অমিত শাহ৷